সৈকতে ভেসে যাওয়ার ৩ দিন পর পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কক্সবাজার
প্রকাশিত: ০৮:০৩ পিএম, ১৫ মে ২০২২

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে গোসল করতে নেমে নিখোঁজ হওয়ার ৭২ ঘণ্টা পর সাইদুল ইসলাম জহির (২৮) নামের এক পর্যটকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার (১৫ মে) দুপুর দেড়টার দিকে মহেশখালী চ্যানেলের শাপলাপুর ঘাট থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল হাই।

সাইদুল ইসলাম জহির চট্টগ্রামের লোহাগাড়া এলাকার আব্দুর রহমানের ছেলে।

পুলিশ ও পরিবার সূত্র জানায়, শুক্রবার (১৩ মে) দুপুরে জহিরসহ পাঁচ বন্ধু কক্সবাজার ভ্রমণে এসে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে গোসল করতে নামেন। এ সময় নিখোঁজ হন জহির। তাকে খুঁজে না পেয়ে বন্ধুরা বিষয়টি ট্যুরিস্ট পুলিশ ও লাইফগার্ড কর্মীদের জানান। এরপর থেকে বিভিন্ন স্থানে জহিরের খোঁজ চলতে থাকে। অবশেষে তিনদিন পর রোববার মহেশখালী থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

জহিরের বন্ধু সাকিব জানান, তারা পাঁচ বন্ধু লোহাগাড়া থেকে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কক্সবাজারে পৌঁছান। এরপর দুপুরে তারা সবাই সুগন্ধা পয়েন্টে গোসলে নামেন। খালাতো ভাই শামসুল ও জহির একসঙ্গে ছিলেন। শামসুল গভীর পানিতে নেমে গেলেও জহির সাঁতার না জানায় পেছনে কোমর পানিতে ছিলেন। এর ঘণ্টাখানেক পর থেকে তারা জহিরকে খুঁজে না পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশকে জানান। সে সময় জহির সাগরে তলিয়ে যান।

মহেশখালী থানার ওসি আব্দুল হাই মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মরদেহটি কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) রফিকুল ইসলাম জানান, মরদেহটি নিখোঁজ পর্যটক জহিরের বলে শনাক্ত করেছেন তার স্বজনরা। আইনি প্রক্রিয়া শেষে সন্ধ্যায় পরিবারের কাছে মরদেহটি হস্তান্তর করা হয়েছে।

সায়ীদ আলমগীর/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]