গোপালগঞ্জে নদী থেকে হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি গোপালগঞ্জ
প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ১৮ মে ২০২২
ফাইল ছবি

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার মধুমতি নদীতে ভাসমান এক ব্যক্তির হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ওই ব্যক্তির নাম বেলাল হোসেন (৩৫)। তিনি কাশিয়ানী উপজেলার কুমরিয়া গ্রামের বসার বিশ্বাসের ছেলে।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে বৌলতলী ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা ইটের সঙ্গে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করে।

এর আগে উলপুর ইউনিয়নের নারী ইউপি সদস্য ফারজানা বেগম নদীতে মরদেহ ভাসতে দেখে ৯৯৯-এ ফোন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে গোপালগঞ্জের বৌলতলী ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

বৌলতলী পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক এ এইচ এম জসিমউদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, তারা মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, নিহতরে দ্বিতীয়পক্ষের স্ত্রীর বাবার বাড়ি সদর উপজেলার উলপুর গ্রামে। ধারণা করা হচ্ছে, সেখানে কোনো কারণে তাকে হত্যা করে মরদেহ গুম করার জন্য হাত-পাসহ ছয়টি ইটের সঙ্গে বেঁধে নদীতে ডুবিয়ে দেওয়া হয়। তারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এমআরআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]