গো-খাদ্যের দাম বৃদ্ধি, রংপুরে গরু নিয়ে প্রাণিসম্পদ অফিস ঘেরাও

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৫:৫৯ পিএম, ২৫ মে ২০২২

মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে গো-খাদ্যের দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রাণিসম্পদ অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন রংপুরের খামারিরা।

বুধবার (২৫ মে) দুপুরে রংপুর ডেইরি ফার্মার্স অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়

এসময় গরুর গায়ে ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে বাঁচান, গরুর খাবারের দাম কমাও, দুধের দাম বাড়িয়ে দাও, নইলে মোদের জীবন নাও’ এমন শ্লোগান সম্বলিত ফেস্টুন লিখে খামারিরা রংপুর জেলা ও বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ অফিস ঘেরাও করেন।

jagonews24

খামারিরা প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করে দুধের দাম বাড়ানো, খামারি পর্যায়ে আগামী বাজেটে গো-খাদ্যে ভর্তুকি দেওয়াসহ ছয় দফা দাবি তুলে ধরেন। খামারিরা বলেন, অচিরেই গো-খাদ্যের দাম না কমালে এবং বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধান না হলে দেশ থেকে খামার যেমন ধ্বংস হবে, তেমনি বেকার হবে লাখ লাখ যুবক।

বিক্ষোভ চলাকালে জেলা ও বিভাগীয় ডেইরি ফার্মার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লতিফুর রহমান মিলনের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম আসিফুল ইসলাম আসিফ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইদুল ইসলাম ও ওয়েজ করনী বাবু প্রমুখ।

jagonews24

ঘণ্টাব্যাপী এ বিক্ষোভ ও ঘেরাও কর্মসূচিতে খামারিদের ছয় দফা দাবি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানোর আশ্বাস দেন রংপুর বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. ওয়ালিউর রহমান আকন্দ।

খামারিদের অন্য দাবিগুলো হলো- প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে খামারি পর্যায়ে চিকিৎসাসেবা বৃদ্ধি, নিম্নমানের গুঁড়া দুধ আমদানি বন্ধ, গো-খাদ্যের ভেজাল রোধে কার্যকর ভূমিকা, গো-খাদ্যের সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের বিচারের আওতায় আনা এবং সরকারের পক্ষ থেকে খামারিদের ঘাস চাষের জন্য জমি বরাদ্দ দেওয়া।

দাবিগুলো অচিরে না মানলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন খামারিরা। বিক্ষোভ ও ঘেরাও কর্মসূচিতে রংপুরের প্রায় পাঁচ শতাধিক খামারি অংশ নেন।

জিতু কবীর/এমআরআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]