পিরোজপুরে জামিনে বের হয়ে বাদীর ওপর হামলা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরােজপুর
প্রকাশিত: ০৭:৩৭ পিএম, ২২ জুন ২০২২

পিরােজপুরের ইন্দুরকানীতে জামিনে বেরিয়ে শামীম হাওলাদার (১৭) নামের এক মামলার বাদীকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে আসামিদের বিরুদ্ধে।

বুধবার (২২ জুন) সকালে উপজেলার উত্তর ভবানিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শামীম হাওলাদার উপজেলার উত্তর ভবানিপুর গ্রামের নাদের আলী হাওলাদারের ছেলে। তিনি ২০২২ সালের আলিম পরীক্ষার্থী।

বাদীর পরিবার ও স্বজন সূত্র জানায়, শামীম হাওলাদার তার প্রতিবেশী জাহাঙ্গীর হাওলাদার, মােশারফ হাওলাদার ও মিজান হাওলাদারকে আসামি করে রোববার (১৯ জুন) জমি দখল ও হামলার মামলা করেন। পরে ওইদিনই তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। মঙ্গলবার (২১ জুন) আসামিরা আদালত থেকে জামিনে বের হন। জামিনে বের হয়ে ওইদিন বিকেলে বাদী শামীমকে মারবেন বলে হুমকি দেন।

বুধবার সকালে বাড়ি থেকে বের হওয়ার পথে নিজ ঘরের সামনে মিজান হাওলাদারের নেতৃত্বে আসামি ও তাদের সহযােগীরা শামীমকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে শামীমের স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে ইন্দুরকানী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। পরে তার শরীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে পিরােজপুর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক সাদিয়া বলেন, শামীম হাওলাদার নামের একজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখে তাকে পিরােজপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত শামীম হাওলাদার বলেন, ‘আসামিরা মঙ্গলবার জামিনে বের হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করায় আমাকে মারার হুমকি দেয়। ওইদিন রাতেই আমি ইউএনওকে বিষয়টি জানিয়েছি। বুধবার ইউএনওর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় মিজান হাওলাদারের নেতৃত্বে আসামিরা ও তাদের সহযােগীরা আমার ওপর হামলা করেন। তাদের বিরুদ্ধে আমি মামলা করবাে।’

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে মিজান হাওলাদার বলেন, তাকে হয়রানি করার জন্য এ ঘটনা সাজানাে হয়েছে।

এ বিষয়ে ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাে. এনামুল হক বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]