চেতনানাশক খাইয়ে মোটরসাইকেল চুরির চেষ্টা, যুবককে গণপিটুনি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি পিরোজপুর
প্রকাশিত: ০৭:১২ পিএম, ২৭ জুন ২০২২
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন হাফিজুল শেখ

পিরোজপুরের নাজিরপুরে চেতনানাশক খাইয়ে মোটরসাইকেল চুরির সময় মো. হাফিজুল শেখ (২৫) নামের এক যুবককে গণপিটুনির পর পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয়রা।

রোববার (২৬ জুন) রাতে উপজেলার শেখমাটিয়া ইউনিয়নের শেখমাটিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আটক হাফিজুর বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার মগিয়া ইউনিয়নের বড় আন্দারমানিক গ্রামের এনায়েত হোসেন শেখের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাতে খাবারের সঙ্গে চেতনানাশক খাইয়ে স্থানীয় সতেন্দ্র নাত মন্ডলের বাড়ির সবাইকে অচেতন করেন চোর চক্রের তিন সদস্য। ওই বাড়ির গৃহকর্তা সতেন্দ্র নাথ মন্ডল (৬৩), স্ত্রী পুষ্প রানী মন্ডল (৫৮), তার পুত্রবধূ দেবী রানী দত্ত (৩০) ও ছেলে সুমন মন্ডল (৩২) গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন।

গৃহকর্তার আরেক ছেলে সমীর মন্ডল বলেন, ‘রাত ১১টার দিকে তিনি নাজিরপুর থেকে বাড়ি যাই। এ সময় তার মেজো ভাই সঞ্জীব কুমার মন্ডল জানান, খাবারের সঙ্গে কোনো ধরনের চেতনানাশক প্রয়োগ করা হয়েছে। এ খবর শুনে তার সন্দেহ হলে তিনি রাত জেগে পাহারা দেন। কিছু সময় পর বাড়ির ভেতরে অজ্ঞাতপরিচয় তিনজনকে দেখতে পেয়ে তাদের ধাওয়া করে একজনকে ধরে ফেলি। এ সময় স্থানীয়রা তাকে গণপিটুনি দেন।’

সমীর আরও বলেন, ‘আটকের পর ওই যুবক জানায়, সে তার এক সহযোগীর ফোনে তিনজন মোটরসাইকেল সহ মালামাল চুরি করতে গিয়েছিল।’

এ বিষয়ে নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জাগো নিউজকে বলেন, রাতে স্থানীয়রা গণপিটুনি দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছি। সে পুলিশ হেফাজতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

এসজে/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]