ভাঙ্গায় মহিষের ৫০ কেজি পচা মাংসসহ ব্যবসায়ী আটক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ফরিদপুর
প্রকাশিত: ১১:০৯ এএম, ১৩ আগস্ট ২০২২

ফরিদপুরের ভাঙ্গা পৌরসভা অফিসের সামনে হোটেল চোকদার থেকে পচা ও খাওয়ার অনুপযোগী ৫০ কেজি মহিষের মাংস উদ্ধার করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় পচা মাংস সরবরাহের অভিযোগে মাংস ব্যবসায়ী জাহিদ হোসেনকে জরিমানা করা হয়।

শনিবার (১৩ আগস্ট) সকালে এর সত্যতা নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আজিম উদ্দিন।

এর আগে শুক্রবার (১২ আগস্ট) রাত ১১টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজিম উদ্দিন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পৌরসদরের হাইওয়ের পাশে অবস্থিত হোটেল চোকদার থেকে মহিষের ৫০ কেজি নষ্ট মাংসসহ ব্যবসায়ী জাহিদ হোসেন নামক এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। পরবর্তীতে তাকে ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

স্থানীয়দের অভিযোগ, পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর থেকেই পর্যটকদের ভিড় বাড়তে থাকে এসব এলাকায়। অল্প দিনের ব্যবধানে একের পর এক হোটেল গড়ে উঠেছে পৌরসভার মহাসড়কের পাশে। পদ্মা সেতু দেখার পর দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে হয়ে ভাঙ্গার গোলচত্বর দেখতে আসেন দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে শত শত ভ্রমণ পিপাসুরা। মানুষের বাড়তি চাপ থাকায় রাতদিন হোটেলগুলো খোলা রাখা হয়। প্রতিদিন গড়ে দুই থেকে তিন লক্ষাধিক টাকা বেচাকেনা হয়ে থাকে এসব হোটেলে। কিন্তু হোটেলগুলোর মান একেবারেই নিম্নমানের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জাগো নিউজকে জানান, গতকাল রাতে পচা মাংস বিক্রির সময় মাংসের উৎকট গন্ধ ছড়ালে জাহিদ হোসেনকে আটক করে উপজেলা প্রশাসনকে খবর দেওয়া হয়। পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসন ওই ব্যক্তিকে ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. আজিম উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, স্থানীয়রা নষ্ট হয়ে যাওয়া মাংসসহ জাহিদ হোসেনকে আটক করে আমাদেরকে খবর দিলে আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং দেখি এক ব্যক্তি হোটেলে বিক্রির উদ্দেশ্যে নষ্ট মাংসসহ হোটেলে আছেন। পরবর্তীতে তাকে ১৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এন কে বি নয়ন/এফএ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।