ভৈরবে দুপক্ষের সংঘর্ষে তিনজন গুলিবিদ্ধসহ আহত ২০

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি ভৈরব (কিশোরগঞ্জ)
প্রকাশিত: ১২:৪৩ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে দুইপক্ষের সংঘর্ষে তিনজন গুলিবিদ্ধসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ১০টির বেশি দোকানপাট ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়। সংঘর্ষ থামাতে ৪২ রাউন্ড বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ।

পৌর শহরের ভৈরবপুর এলাকায় শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়।

পুলিশের গুলিতে গুরুতর আহত ভৈরবপুর উত্তরপাড়া এলাকার আবু সাঈদ মিয়ার ছেলে ইমতিয়াজ আহমেদকে (৩৫) উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হন একই এলাকার মৃত শাহাবুদ্দিনের ছেলে অপু (২৭) ও জামাল মিয়ার ছেলে দুর্জয় (২২)। অন্যান্য আহতরা হলেন- রাবিম (১৬), রাফসা (৬), মবিন (২০), রাশিদ মিয়া (২৫), খোকন মিয়া (১৪) সহ আরও অনেকেই। তারা ইটপাটকেলের আঘাতে আহত হয়েছেন।

দফায় দফায় কয়েক ঘণ্টা ধরে চলা সংঘর্ষ থামাতে ৪২ রাউন্ড বুলেট নিক্ষেপ করে পুলিশ। এতে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে কী কারণে দুইপক্ষের মধ্য সংঘর্ষ হয়েছে তা কেউ বলতে পারছেন না।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. রৌশন আরা নিপা জানান, তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে আসেন। এদের মধ্য ইমতিয়াজ নামের এক যুবকের অবস্থা গুরুতর বলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ পর্যন্ত আহত ২০ জনের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গুলিবিদ্ধ দুইজনকে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়েছে।

ভৈরব থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) মো. কায়সার আহমেদ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। এ সময় দুইপক্ষের লোকেরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পুলিশের ওপর আক্রমণ করলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে ৪২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। পরিস্থিতি শান্ত রাখতে পুলিশ এখনো কাজ করছে।

রাজীবুল হাসান/কেএসআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।