নামাজ পড়ার সময় গ্রাহকের আড়াই লাখ টাকা চুরি, পরে আটক দুই চোর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি শরীয়তপুর
প্রকাশিত: ০৬:৫৭ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড শরীয়তপুর শাখার ভেতর থেকে গ্রাহকের দুই লাখ ৬০ হাজার ৮০০ টাকা চুরির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে শরীয়তপুর সদর উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের পশ্চিম পাশের দুবাই প্লাজার দ্বিতীয় তলা ইসলামী ব্যাংকের নামাজের স্থান থেকে ওই টাকা চুরি হয়।

ভুক্তভোগী ওই গ্রাহকের নাম আব্দুল মোমিন তালুকদার। তিনি শরীয়তপুর আদালতের পশ্চিম পাশের বাজারের একজন মোবাইল ব্যবসায়ী।

ভুক্তভোগী আব্দুল মোমিন তালুকদার বলেন, ‘আমি মোবাইলের ব্যবসা করি। আজ মোবাইল বিক্রির দুই লাখ ৬০ হাজার ৮০০ টাকা ইসলামী ব্যাংকে জমা দিতে যাই। তখন জোহর নামাজের সময় হয়ে যায়। তাই ব্যাংকের ভেতর নামাজের স্থানে আমার টাকার ব্যাগটি সামনে রেখে নামাজে দাঁড়াই। এক সেজদা দেওয়ার পর খেয়াল করি টাকার ব্যাগটি নেই।’

তিনি বলেন, নামাজ ছেড়ে দ্রুতগতিতে নিচতলায় এসে ‘চোর’, ‘চোর’ বলে চিৎকার করলে স্থানীয়রা অপরিচিত দুজনকে দৌড়াতে দেখেন। পরে ব্যবসায়ী ও স্থানীয়রা ও স্থানীয়রা মিলে তাদের আটক করেন। পরে আমি টাকাগুলো ব্যাংকে জমা করি।

দুবাই প্লাজার আবুল কালাম সিকদার ও আবু বকর হাওলাদারসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, ‘দুবাই প্লাজার দোতলায় ইসলামী ব্যাংক। ব্যাংকের ভেতর এক গ্রাহকের টাকা চুরি হয়ে যায়। পরে টাকার ব্যাগসহ দুই চোরকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক আ. গাফ্ফার মিয়া বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে এখানে ব্যাংকের কোনো বিষয় নেই। এরপরও যেহেতু ঘটনাটি ঘটেছে, তাই পুলিশ সহায়তা চাইলে সিসি টিভির ফুটেজ দেওয়া হবে।

এ বিষয়ে শরীয়তপুর সদর পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আক্তার হোসেন বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ব্যাংক ও এর আশপাশ থেকে সিসি টিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হবে। তবে ভুক্তভোগী মমিন এখনো অভিযোগ করেননি। তিনি অভিযোগ না করলেও আটকদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মো. ছগির হোসেন/এসআর/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।