ডাকাত গুজবে আতঙ্কে মানুষ, রাতভর পাহারা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি মাদারীপুর
প্রকাশিত: ১১:২৯ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২

রাতভর ডাকাত আতঙ্কে ছিলেন মাদারীপুরের মানুষ। রোববার (২৭ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১টার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজবটি ছড়িয়ে পড়লে জেলার বিভিন্ন মসজিদে মাইকিং করা হয়। রাত জেগে ঘরবাড়ি পাহারা দেন গ্রামের মানুষ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মাদারীপুর সদর উপজেলা, কালকিনি, ডাসার ও শিবচরের বিভিন্ন এলাকায় ডাকাতদল হানা দিয়েছে বলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। গোটা রাত আতঙ্কে কাটে মানুষের। কোনো ধরনের ডাকাতির ঘটনা না ঘটায় সোমবার ভোর থেকে সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরে আসে।

সদর উপজেলার মস্তফাপুর, করদি, উত্তর চিড়াইপাড়া, নয়াচর, পাকদি, খাগদী, থানতলী, পিটিআই রোড, হাজির হাওলা, ছয়না, কুকরাইল, গগণপুর; শিবচরের নলগোড়া; কালকিনি উপজেলার সাহেবরামপুর, এনায়েতনগর, ফাসিয়াতলা; ডাসারের নবগ্রাম, খাতিয়ালসহ বেশকিছু গ্রামে ডাকাত আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

আতংক ছড়িয়ে পড়লে বিভিন্ন এলাকার মসজিদে মাইকিং সতর্ক করা হয়। মাইকিংয়ে বলা হয়- ‘আজ রাতে ডাকাতি হবে, তাই সবাই সাবধানে থাকবেন, সবাই জেগে পাহারা দিবেন। যে কোনো সময় ডাকাতরা হামলা দিবে।’

জেলাজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে মাদারীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, পৌর মেয়র মো. খালিদ হোসেন ইয়াদসহ সংশ্লিষ্টরা ডাকাতির ঘটনা গুজব বলে সচেতনমূলক পোস্ট দেন।

মাদারীপুর সদর উপজেলার হাজির হাওলা গ্রামের শিক্ষক নুরজাহান বলেন, রাত ৩টার দিকে আমার এক আত্মীয় হাজির হাওলা গ্রামে ডাকাত পড়েছে জানান। সবাইকে সাবধান থাকার কথা বলেন তিনি।

চিড়াইপাড়া গ্রামের বাসিন্দা ইমদাদুল হক মিলন বলেন, ডাকাত পড়েছে বলে মসজিদে মসজিদে মাইকিং করা হয়েছে।

শিবচর উপজেলার নাসিরুল হক বলেন, নগগোড়া এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকার মসজিদে মাইকিং করা হয়েছে। সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ডিউটি অফিসার (এসআই) মিলন বলেন, বিষয়টি গুজব। কোথাও ডাকাতি হয়েছে বা ডাকাতির চেষ্টা হয়েছে এমন কোন খবর পাওয়া যায়নি।

মাদারীপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, ডাকাতির ঘটনা সম্পূর্ণ গুজব। এ গুজব যারা ছড়িয়েছেন তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।

আরএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।