কুষ্টিয়ায় দুর্নীতির দায়ে সাবেক কানুনগো-সার্ভেয়ারের কারাদণ্ড

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি কুষ্টিয়া
প্রকাশিত: ০৬:১৮ পিএম, ২৮ নভেম্বর ২০২২
পুলিশ হেফাজতে কারাদণ্ডপ্রাপ্ত দুই আসামি

গ্যাস সঞ্চলন পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্পে দুর্নীতির দায়ে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের সাবেক কানুনগো রেজাউল করিম ও সার্ভেয়ার রবিউল ইসলামকে ৩ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের চার লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ৮ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে কুষ্টিয়ার বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আশরাফুল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা রেজাউল করিম (৫৮) মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার আনন্দবাস গ্রামের ইজ্জত আলীর ছেলে। তিনি কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এল এ শাখার সাবেক কানুনগো (বর্তমানে অবসরপ্রাপ্ত)। অপর আসামি রবিউল ইসলাম কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কালোয়া গ্রামের মতিউর রহমানের ছেলে। তিনি এল এ শাখার সাবেক সার্ভেয়ার (বর্তমানে চাকরিচ্যুত) ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আসামি রেজাউল করিম ও রবিউল ইসলাম ২০১৪ সালে ভেড়ামারা-খুলনা গ্যাস সঞ্চলন পাইপ লাইন নির্মাণ প্রকল্পের ৩ লাখ ৫০ হাজার ৬৬৯ টাকা আত্মসাৎ করেন। এ ঘটনায় দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত কুষ্টিয়া জেলা কার্যালয়ের তৎকালীন উপ-পরিচালক মো. আব্দুল গাফফার বাদী হয়ে ২০১৬ সালের ২৬ এপ্রিল কুষ্টিয়া মডেল থানায় দুজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ১৫ মার্চ আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

দুদকের কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট আল মুজাহিদ হোসেন মিঠু রায় জাগো নিউজকে বলেন, আসামি রেজাউল করিম ও রবিউল ইসলাম বিশ্বাস ভঙ্গের অপরাধে দোষী সাবস্ত হওয়ায় তাদের প্রত্যেককে পেনাল কোডের ৪০৯ ধারায় তিন বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। অন্যদিকে অপরাধমূলক অসদাচরণের কারণে ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় তিন বছর সশ্রম কারাদণ্ড এবং অবৈধভাবে লাভবান হওয়ার জন্য তাদের প্রত্যেককে চার লাখ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়। দুই সাজাই এক সময়ে চলবে।

আল-মামুন সাগর/এসজে/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।