জমি নিয়ে মারামারি

আহত বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেলো এইচএসসি পরীক্ষার্থীর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি দিনাজপুর
প্রকাশিত: ০৮:৪৯ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় আটকরা

দিনাজপুরের বীরগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে আহত বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে এইচএসসি পরীক্ষার্থী মোছা. আঁখি আকতার (২০) নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের দিস্তাপড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আঁখি দিস্তাপড়া গ্রামের আকতারুল ইসলামের মেয়ে। তিনি এবার বীরগঞ্জ সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিলেন।

আটকরা হলেন, রশিদা বেগম, সাবিনা আকতার ,শাকিল হোসেন, মিস্টার ও রুবেল। তাদেরকে বীরগঞ্জ থানা হাজতে রাখা হয়েছে।

jagonews24

নিহত আঁখির খালাতো ভাই জাহিদ হাসান জানান, ওই গ্রামের রিয়াজুল ইসলামের সঙ্গে তার চাচাতো বোন রোকেয়া বেগমের দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে মামলা চলে আসছে। ওই জমিতে রোববার দুপুরে রিয়াজুল ইসলাম ঘর তুলতে যান। এসময় রোকেয়া বেগমের লোকজন গিয়ে বাধা দেন। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে আঁখির বাবা আকতারুল ইসলাম আহত হন।

তিনি আরও জানান, পরীক্ষা দিয়ে বাসায় ফিরেই মারামারির খবর শুনে আহত বাবাকে বাঁচাতে দৌড়ে ঘটনাস্থলে যান আঁখি। এসময় প্রতিপক্ষের লোকজন পেছন থেকে আঁখির মাথায় আঘাত করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

এমদাদুল হক মিলন/এমআরআর/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।