কেনাকাটা-বিনোদনের বাণিজ্য মেলা

মো. শফিকুল ইসলাম
মো. শফিকুল ইসলাম মো. শফিকুল ইসলাম , নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৫৩ এএম, ০২ জানুয়ারি ২০১৮

বাবা-মার সঙ্গে বাণিজ্য মেলায় এসেছে ছোট্ট শিশু ফারাবি। ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎ হেলিকপ্টার দেখে বায়না, চড়বে সে। বাবা-মা দু’জনই কয়েকবার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন কিন্তু শেষমেষ ছেলের চাওয়া পূরণ করতে হয় তাদের।

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় কেনাকাটার সঙ্গে বিনোদনেরও সুযোগ রয়েছে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের। এবারও শিশুদের বিনোদনের জন্য স্থাপন করা হয়েছে মিনি শিশু পার্ক। সেখানে দেখা মিললো ফারাবি ও তার বাবা-মার।

শুধু শিশুদের জন্য নয়, সব বয়সীদের বিনোদনের জন্য রয়েছে ফ্যান্টাসি পার্ক। ঘুরে ঘুরে কেনাকাটা করে হাঁপিয়ে ওঠা যে কেউ মনে প্রশান্তি আনতে ঢু মারতে পারেন সেখানে, মারছেনও।

মেলার দ্বিতীয় দিন ঘুরতে ও কেনাকাটা করতে আসা প্রায় সব অভিভাবকই সঙ্গে থাকা ছেলে-মেয়ের বায়না পূরণে শিশু পার্কে আসছেন। শুধু শিশুরাই নয়, পার্কে বিনোদন করতে দেখা যায় কিশোরদের, ছিলেন প্রাপ্তবয়স্করাও।

সরেজমিন মেলা প্রাঙ্গণে একদিনে স্থাপিত শিশু পার্ক ঘুরে দেখা যায়, রঙিন সাম্পানে বসে দোল খাচ্ছে বিভিন্ন বয়সী শিশু-কিশোর। মিউজিকের তালে তালে দোল খাচ্ছে সাম্পান। সেসঙ্গে আনন্দে আত্মহারা সবাই। পার্কের এক জায়গায় ‘কু-ঝিকঝিক’ শব্দে ট্রেন চলছে, আরেক জায়গায় ঘুরছিল নাগরদোলা।

দুই স্থানেই শিশু-কিশোরদের বেশ ভিড়। এছাড়া ভিড় দেখা গেলো হানি সুইং, দোলনা ও হেলিকপ্টারের কাছেও। হৈ-হুল্লোড় আর উচ্ছ্বাসে একটু বেশিই প্রাণবন্ত বাণিজ্য মেলার ছোট পরিসরের এ শিশুপার্ক। পার্কের এদিকটায় আসা শিশুরা কেউ এ সুযোগ যেন হাতছাড়া করতে রাজি নয়।

মেলাপ্রাঙ্গণের পশ্চিম প্রান্তে ‘ইজি ফন ল্যান্ড’ শিশুপার্কটি মেসার্স অন্তরা এন্টারপ্রাইজের। পার্কের ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা মো. মাসুদ জানান, মেলায় শিশুদের সময়টা যেন আনন্দে কাটে সে জন্য এ আয়োজন। পাশাপাশি বিভিন্ন পার্ক ও মেলায় রাইডের যন্ত্রপাতি-উপকরণ ও খেলনা বিক্রিসহ এসবের প্রচারণা চালান তারা।

তিনি আরো জানান, মেলায় শিশুপার্কের প্রতিটি রাইড বিদ্যুৎচালিত। প্রতিটি রাইড ৫-৮ মিনিট ধরে উপভোগ করতে পারবে শিশুরা। এবার তাদের মোট নয়টি রাইড রয়েছে। একটি ছাড়া বাকি সব রাইডের টিকিট মূল্য ৩০ টাকা।

মেলার পূর্বপ্রান্তে রয়েছে শারিকা ফ্যান্টাসি পার্ক। সব বয়সী ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য এ পার্কে ১০০ টাকার টিকিটে ৯-ডি মুভি দেখার সুযোগ রয়েছে। তবে এ পার্কে সব ধরনের রাইডের টিকিটের মূল্য ১০ থেকে ২০ টাকা বেশি নেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ দর্শনার্থীদের। এ পার্কে ম্যাজিক বোট সাম্পান ও ওয়ান্ডার হুইলের টিকিটের মূল্য ৫০ টাকা। এছাড়া হানি সুইং এবং ট্রেনে চড়তে লাগবে ৪০ টাকা। এখানেও রয়েছে কিডস রাইডস, টিকিটের মূল্য ৩০ টাকা। এসব রাইডের চাহিদাও বেশ ভালো।

মূল্য বেশি রাখার কারণ জানতে চাইলে ফ্যান্টাসি পার্কের টিকিটবিক্রেতা সোহেল বলেন, কম না বেশি তা বলতে পারবো না। মালিকপক্ষ যে দাম নির্ধারণ করেছে, সে দামে বিক্রি করছি।

বাংলাদেশসহ ২৩টি দেশের অংশগ্রহণে ১ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এ মেলা চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এ মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত। মেলায় প্রবেশ টিকিটের মূল্য প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ৩০ টাকা এবং অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

এসআই/এসআর/এমএআর/এএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :