একদিকে জনসমুদ্র অন্যদিকে ফাঁকা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৭ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮ | আপডেট: ০৮:৪৯ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০১৮

শনিবার দুপুরের পর ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় নামা মানুষের ঢল সন্ধ্যার পর কিছুটা কমেছে। এতে কিছু কিছু অংশের স্টলগুলোতে ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা খুব কম দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে মেয়েদের থ্রি-পিস ও বেডশিটের স্টলগুলো অনেকটাই ফাঁকা দেখা গেছে। তবে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত মেলার একটি বড় অংশই জনসমুদ্রে পরিণত ছিল।

মেলার গেট ও পার্কিং স্থানের দায়িত্ব পালন করা একাধিক কর্মী বলেন, শনিবার গেট খুলে দেয়ার পর পরই দর্শনার্থীরা মেলায় প্রবেশ করতে থাকেন। তবে দর্শনার্থীদের মূল ঢল নামে বিকেল ৩টির দিকে। দেখতে দেখতে ৪টার মধ্যে মেলা প্রাঙ্গণ পূর্ণ হয়ে যায়। সেই সঙ্গে পূর্ণ হয়ে যায় গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য নির্ধারিত স্থান। ফলে এক পর্যায়ে মটরসাইকেল পার্কিংয়ের জন্য নির্ধারিত স্থানের গেট বন্ধ করে দেয়া হয়।

DIFT-1

তারা জানান, বিকেল ৫টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের ঢল অব্যহত থাকে। তবে মাগরিবের আজান দেয়ার পর দর্শনার্থী আসা কমতে থাকে। বিকেলে প্রবেশ পথে দর্শনার্থীদের টিকিট চেক করতেই হিমশিম খেতে হচ্ছিল। তবে সন্ধ্যার পর মেলায় প্রবেশে দর্শনার্থীদের কোনো সমস্যায় হচ্ছে না। দর্শনার্থীরা ঝামেলা ছাড়াই মেলার মাঠে প্রবেশ করতে পারছেন। সেই সঙ্গে পার্কিং স্থানে কিছু কিছু জায়গা খালি হয়েছে।

সন্ধ্যা ৭টার দিকে প্রধান ফটকের সামনে গিয়ে দেখা যায়, তখনও সারিবদ্ধভাবে একের পর এক দর্শনার্থী মেলার মাঠে প্রবেশ করছেন। তবে দর্শনার্থীদের প্রবেশের সেই লাইন বিকেলের তুলনায় অর্ধেকেরও কম। অবশ্য প্রধান ফকট দিয়ে প্রবেশ করেই সামনে থাকা ফাঁকা স্থান তখন এক প্রকার জনসমুদ্রই ছিল। একই অবস্থা দেখা যায় মেলার পশ্চিম দিকের রাস্তা ও স্টলগুলোতে। সেই তুলনায় ভিআইপি গেটের সাইডে দর্শনার্থীদের চাপ খুবই কম।

DIFT-1

মেলার ভিআইপি গেট দিয়ে প্রবেশ করে সামনে কিছুদূর অগ্রসর হলেই চোখে পড়বে একাধিক থ্রি-পিসের স্টল। এ স্টলগুলোর সামনে গিয়ে দেখা যায়, ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা খুবই কম। কিছু কিছু স্টলের কর্মীদের অলস সময় পার করতে দেখা গেছে। একই অবস্থা দেখা যায় থ্রি-পিসের স্টলগুলোর পাশে অবস্থিত কংকা টেলিভিশনের প্যাভিলিয়ন। এ প্যাভিলিয়নটির পাশে অবস্থিত আকতার ফার্নিচারের স্টলেও ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা বেশ কম দেখা যায়। পাশেই অবস্থিত বেক্সি ফেব্রিক্সের প্যাভিলিয়নেও দর্শনার্থীর সংখ্যা ছিল কম।

কাংকা টেলিভিশনের প্যাভিলিয়নে দায়িত্ব পালন করা ফাইদুল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে জাগো নিউজকে বলেন, এখন দর্শনার্থীর সংখ্যা কম থাকলেও বিকেলের দিকে ভালো দর্শনার্থী ছিল। বিকেলের দিকে আমাদের প্যাভিলিয়ন দর্শনার্থীতে প্রায় পরিপূর্ণ ছিল।

DIFT-1

বেক্সি ফেব্রিক্সের গেটে দায়িত্ব পালন করা আলম বলেন, শনিবার বলে আজ ভিড় একটু কম। তবে বিকেলের দিকে ভালো ভিড় ছিল। এ পর্যন্ত সব থেকে বেশি ভিড় হয়েছে গতকাল শুক্রবার। এদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দর্শনার্থীদের ভিড় ছিল।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে মেলায় প্রবেশ করা যাত্রাবাড়ী এলাকার বাসিন্দা মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, দুপুরের খাবার খেয়েই মেলার উদ্দেশে বের হয়েছি। কিন্তু কারওয়ান বাজারে এসে প্রচণ্ড যানজটে পড়ি। কারওয়ান বাজার থেকে ফার্মগেট আসতেই এক ঘণ্টার বেশি সময় লেগেছে। এক পর্যায়ে ফার্মগেটে নেমে হেটে আসতে শুরু করি। কিন্তু চন্দ্রীমা উদ্যানের মোড়ে এসে দেখি এ দিকের রাস্তা ফাঁকা।

এমএএস/এমইউএইচ/এমবিআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :