১৭ বছর পর কমল ব্যাংক রেট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪০ পিএম, ২৯ জুলাই ২০২০

করোনা সঙ্কটে অর্থের জোগান বাড়াতে প্রায় ১৭ বছর পর ব্যাংক রেট কমিয়ে ৪ শতাংশ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বুধবার (২৯ জুলাই) বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে মুদ্রানীতির এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। করোনা মহামারিতে বিপর্যস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধার এবং সরকার নির্ধারিত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে চলতি (২০২০-২১) অর্থবছরের জন্য ‘সম্প্রসারণমুখী’ মুদ্রানীতি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

ঘোষিত মুদ্রানীতি নিয়ে গভর্নর ফজলে কবির বলেন, সম্প্রতি ঘোষিত সুদহার যৌক্তিকীকরণ নীতিমালার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে গত ৬ নভেম্বর ২০০৩ থেকে প্রায় ১৭ বছর ধরে অপরিবর্তিত থাকা ব্যাংক রেট বর্তমানে বিদ্যমান ৫ শতাংশ থেকে ১০০ বেসিস পয়েন্ট হ্রাস করে ৪ শতাংশে পুনর্নির্ধারণ করা হলো।

জানা গেছে, ২০০৩ সালের পর থেকে ব্যাংক রেট ৫ শতাংশ ছিল। বিভিন্ন পলিসি রেট কমানো হলেও ব্যাংক রেট অপরিবর্তিত ছিল এই দীর্ঘ সময়। ব্যাংক রেট হলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ব্যাংকগুলো পুনঃঅর্থায়ন সুবিধা নিয়ে গ্রাহকদের ঋণ সুবিধা দেয় তার সুদের হার।

সরকার যে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে তার একটি বড় অংশ ব্যাংকগুলো পুনঃঅর্থায়ন সুবিধার মাধ্যমে বাস্তবায়ন করবে।

নতুন মুদ্রানীতিতে রেপো (পুনঃক্রয় চুক্তি) ও রিভার্স রেপোর সুদহার আরও এক দফা কমিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, ব্যাংকগুলো যখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ধার করে, তখন তার সুদহার ঠিক হয় রেপোর মাধ্যমে। ব্যাংকগুলোর তহবিল খরচ কমানোর পাশাপাশি চাহিদা অনুযায়ী তারল্য সরবরাহ বাড়াতে নতুন মুদ্রানীতিতে রেপোর হার ৫ দশমিক ২৫ শতাংশ থেকে ৫০ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে ৪ দশমিক ৭৫ শতাংশ করা হয়েছে। রিভার্স রেপোর মাধ্যমে ব্যাংকগুলো তাদের উদ্বৃত্ত অর্থ কেন্দ্রীয় ব্যাংকে জমা রাখে। এক্ষেত্রে সুদহার ৭৫ বেসিস পয়েন্ট কমিয়ে ৪ শতাংশ করা হয়েছে।

এসআই/এএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]