প্রণোদনার ঋণের সময় বৃদ্ধিতে এসএমই ফাউন্ডেশনের কৃতজ্ঞতা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০৯ এএম, ১৩ জানুয়ারি ২০২১

করোনা প্রেক্ষাপটে কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি (সিএমএসএমই) খাতের উদ্যোক্তাদের জন্য সরকার ঘোষিত ২০ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনার ঋণ বিতরণের সময়সীমা চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সিএমএসএমই খাতের প্রণোদনার অর্থ বিতরণের সময় বৃদ্ধি করায় বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে এসএমই ফাউন্ডেশন।

এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. মফিজুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ কৃজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রোগ্রামস ডিপার্টমেন্ট জানায়, 'এ সুযোগ শুধু প্রণোদনার ঋণ বিতরণের লক্ষ্য পূরণ করতে না পারা ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি (সিএমএসএমই) উদ্যোক্তাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ২০ হাজার কোটি টাকার প্যাকেজের ঋণ/বিনিয়োগ বিতরণ লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের সময়সীমা ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত নির্ধারিত ছিল। যেসব ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত সময়ে প্যাকেজের ঋণ দেয়ার লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারেনি, তাদের ৩১ মার্চ ২০২১ এর মধ্যে তা নিশ্চিত করতে একটি মাসভিত্তিক পরিকল্পনা প্রণয়ন করে ১৭ জানুয়ারি ২০২১ এর মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট বিভাগে প্রেরণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসেবে, ১৭ ডিসেম্বর ২০২০ পর্যন্ত ২০ হাজার কোটি টাকার মধ্যে মাত্র ১০ হাজার ৫০০ কোটি টাকা বিতরণ করেছে ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো। এ প্রেক্ষিতে কোভিড-১৯ এর ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক নতুন নির্ধারিত সময় ৩১ মার্চ ২০২১ এর মধ্যে সিএমএসএমই খাতের উদ্যোক্তাদের মধ্যে বাকি অর্থ বিতরণে ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরো আন্তরিক ও কার্যকর ভূমিকা পালনের জন্য এসএমই ফাউন্ডেশন আন্তরিকভাবে অনুরোধ করেছে।

ইএআর/এমএইচআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]