বিকাশে রেমিট্যান্স পাঠিয়ে ফের ১ শতাংশ ক্যাশ বোনাস পাওয়ার সুযোগ

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৩ পিএম, ১৮ এপ্রিল ২০২১

চলমান করোনা পরিস্থিতিতে এবং রমজান মাসে বিদেশ থেকে ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে বিকাশে রেমিট্যান্স পাঠানো আরো স্বস্তিদায়ক করতে সরকারি ২ শতাংশ প্রণোদনার সঙ্গে আরো ১ শতাংশ ক্যাশ বোনাস দিচ্ছে বিকাশ।

বিশ্বের ৯৩টি দেশ থেকে অনলাইন বা ওয়ালেট ট্রান্সফারের মাধ্যমে ৫০টির বেশি মানি ট্রান্সফার সংস্থা হয়ে দেশের ১০টি বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে ৫ কোটি ২০ লাখ বিকাশ অ্যাকাউন্টে নিরাপদে রেমিট্যান্স পাঠানোর সুযোগ পাচ্ছেন প্রবাসীরা। এসব সুবিধার কারণে বিকাশে ২০২০ সালে প্রায় ১১৬০ কোটি টাকা সমপরিমাণের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা।

করোনার এই সময়ে ঘরে বসে সহজেই রেমিট্যান্স গ্রহণসহ সরকারি ২ শতাংশ প্রণোদনার পাশাপাশি বিকাশের আরো ১ শতাংশ ক্যাশ বোনাস প্রবাসী এবং তার স্বজনদের জন্য বাড়তি স্বস্তি নিয়ে এসেছে।

১০ হাজার টাকা বা এর চেয়ে বেশি যে কোনো পরিমাণ রেমিট্যান্স পাঠানোর জন্য এই অফারটি প্রযোজ্য হবে। অফারটি চলবে ৩১ মে ২০২১ পর্যন্ত।

একজন গ্রাহক অফার চলাকালীন মাসে ২ বার করে দুই মাসে মোট ৪ বার এবং মাসে ১,২০০ টাকা করে দুই মাসে সর্বোচ্চ ২,৪০০ টাকা বোনাস উপভোগ করতে পারবেন। সরকারি প্রণোদনা ও বিকাশ বোনাসসহ একটি বিকাশ অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা এবং মাসে সর্বোচ্চ ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা রেমিট্যান্স হিসেবে পাঠানোর সুযোগ রয়েছে।

কোথাও না গিয়ে যে কোনো সময় যে কোনো স্থান থেকে অনলাইন বা ইন্টারনেট অথবা মোবাইল ওয়ালেটের মাধ্যমে ট্রান্সফার করে ব্যাংকিং চ্যানেল হয়ে মুহূর্তেই প্রিয়জনের বিকাশ অ্যাকাউন্টে রেমিট্যান্স পাঠানোর এই সেবাটি এরই মধ্যে প্রবাসীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। পাশাপাশি করোনার এই সময়ে তাদেরকে নিরাপদে থাকতেও সাহায্য করছে।

পাশাপাশি, দেশে প্রিয়জনেরা মহামারির এই সময়ে অর্থ এবং সময় ব্যয় করে ব্যাংকে গিয়ে রেমিট্যান্স তোলার পরিবর্তে বাড়ির কাছের এজেন্টের কাছ থেকে যে কোনো সময় ক্যাশ আউট করতে পারছেন। পাশাপশি, ঘরে থেকেই বিকাশ অ্যাকাউন্টের মাধ্যমেই বিভিন্ন ইউটিলিটি সেবার বিল পরিশোধ, টাকা পাঠানো, মোবাইল রিচার্জ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা হাসপাতালের খরচ পরিশোধ, কেনাকাটা করাসহ অসংখ্য সেবা নিতে পারছেন গ্রাহক।

এসব সুবিধার কারণে দেশে থাকা প্রিয়জনরাও ব্যাংকিং চ্যানেল হয়ে বিকাশে রেমিট্যান্স গ্রহণকে সহজ, ঝামেলামুক্ত ও সবচেয়ে নিরাপদ মনে করছেন।

এমআরএম/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]