দিন শেষে টিকলো না শুরুর বড় উত্থান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৭ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবারে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচকের বড় উত্থানে লেনদেন শুরু হলেও, শেষ পর্যন্ত তা টেকেনি। শুরুর বড় উত্থান শেষ পর্যন্ত পতন দিয়ে শেষ হয়েছে।

সবকটি মূল্যসূচকের পতনের সঙ্গে দুই বাজারেই কমেছে লেনদেনে অংশ নেওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম। তবে ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা বেড়েছে। আর সিএসইতে লেনদেনও কমেছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয় সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে প্রথম মিনিটেই ডিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক ডিএসই-এক্স ২৫ পয়েন্ট বেড়ে যায়। আর লেনদেনের ৩০ মিনিটের মাথায় সূচকটি বাড়ে ৪৭ পয়েন্ট।

এরপর সূচকের ঊর্ধ্বমুখী ধারা কিছুটা কমলেও প্রথম দুই ঘণ্টা তা অব্যাহত থাকে। কিন্তু শেষ দেড় ঘণ্টায় এসে একের পর এক প্রতিষ্ঠানের দরপতন হতে থাকে। ফলে টানা নিচের দিকে নামতে থাকে সূচক।

প্রথম আধঘণ্টার লেনদেনে যেখানে ২৫০-এর বেশি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ে, সেখানে দিনের লেনদেন শেষে দাম বাড়ার তালিকায় টিকে থাকে ১২৫টি। বিপরীতে ২০৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম কমার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বাকি ৪২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এতে ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসই-এক্স আগের দিনের তুলনায় ১৬ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ২৪১ পয়েন্টে নেমে গেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ৪ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৫৮২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ১২ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৬৭৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

সবকটি সূচকের পতন হলেও ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা বেড়েছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ১৫০ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১ হাজার ৯১০ কোটি ৩ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ২৪০ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ওরিয়ন ফার্মার শেয়ার। কোম্পানিটির ১৩৩ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকোর ৯৮ কোটি ৯৭ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৬৬ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ম্যাকসন স্পিনিং।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- বেক্সিমকো ফার্মা, ডেল্টা লাইফ, অ্যাক্টিভ ফাইন, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, প্যাসিফিক ডেনিমস, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ এবং সাইফ পাওয়ার টেক।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই কমেছে ৮২ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৬২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩২০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১৫টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৭১টির এবং ৩৪টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এমএএস/এমএইচআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]