অর্থনৈতিক লক্ষ্য অর্জনে দক্ষ জনবলের বিকল্প নেই: বিসিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:০৪ এএম, ২৫ মে ২০২২

বাংলাদেশ সরকারের ভিশন-২০৪১, এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণসহ অন্যান্য অর্থনৈতিক লক্ষ্য অর্জনে দক্ষ জনবল তৈরির কোনো বিকল্প নেই বলে উল্লেখ করেছেন বাংলাদেশ চেম্বার অব ইন্ডাস্ট্রিজের (বিসিআই) সভাপতি আনোয়ার-উল আলম চৌধুরী।

মঙ্গলবার (২৪ মে) রাজধানীর গুলশানে জার্মান উন্নয়ন সংস্থার (জিআইজেড) ঢাকা কার্যালয়ে সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. অ্যাঞ্জেলিকা ফ্লেডারম্যানের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এ কথা জানান। বিসিআই সভাপতির নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল সাক্ষাতে অংশ নেন।

বিসিআই সভাপতি বলেন, বিসিআই বাংলাদেশভিত্তিক সরকারি ও বেসরকারি উভয় খাতের সর্বপ্রকার শিল্পের প্রতিনিধিত্বকারী একক এবং একমাত্র শিল্প চেম্বার, যা দেশের শিল্পায়ন তথা অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছে। বিসিআই দেশে নতুন তথা মাইক্রো ও ক্ষুদ্র শিল্পোদ্যোক্তা সৃষ্টি এবং উন্নয়নে কাজ করছে। এছাড়াও স্থানীয় সব শিল্পের সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা নিরসনে ভূমিকা রাখছে।

তিনি বলেন, দেশে কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র শিল্প একটি অপার সম্ভাবনাময় খাত। কিন্তু এ খাতে দক্ষ জনবলের অভাব। অর্থনৈতিক লক্ষ্য পূরণে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত জনবলের বিকল্প নেই।

মাইক্রো ও ক্ষুদ্র শিল্প, লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্পখাত, কৃষি প্রক্রিয়াজাত শিল্পসহ অন্য সম্ভাবনাময় শিল্পখাতে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে বিসিআই দেশে দক্ষ জনবলের অভাব নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে বলেও জানান তিনি।

বিসিআই সভাপতি আরও বলেন, আমরা জার্মানির মতো কারিগরি জ্ঞানে সমৃদ্ধ দেশ থেকে দক্ষ প্রশিক্ষক এনে দেশে প্রশিক্ষক তৈরি করতে চাই। যারা পরবর্তী সময়ে সারাদেশে দক্ষ কর্মী ও ব্যবস্থাপক তৈরি করবে এবং দক্ষ জনবলের স্বল্পতা নিরসনে সহায়তা করবে।

বিসিআই সভাপতি দেশে দক্ষ প্রশিক্ষক তৈরি, কোর্স কারিকুলাম ও প্রশিক্ষণ ম্যানুয়াল, আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহারের সক্ষমতা, এসএমই খাতে বিশেষ করে লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্পখাত ও কৃষি প্রক্রিয়াজাত শিল্পখাতে দক্ষ শ্রমশক্তি ও নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে এবং রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণে জিআইজেডকে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

এসময় জিআইজেড’র কান্ট্রি ডিরেক্টর বিসিআইয়ের উদ্যোগের প্রসংসা করেন। একইসঙ্গে আগামীতে জিআইজেড ও বিসিআই একসঙ্গে কাজ করবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সাক্ষাৎকালে উপস্থিত ছিলেন বিসিআইয়ের ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি প্রীতি চক্রবর্ত্তী, সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলাম নিরু, পরিচালক কে এম রিফাতউজ্জামান ও মহাসচিব ড. অর্ধেন্দু শেখর রায়। এসময় জিআইজেড’র বিজনেস স্কাউট ফর ডেভেলপমেন্ট টমাস হাবনার এবং প্রজেক্ট ম্যানেজার ড. মাইকেল ক্লোড উপস্থিত ছিলেন।

ইএআর/এমকেআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]