সরকারি কর্মচারীদের সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির জন্য দরখাস্ত আহ্বান

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৩১ এএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭

২০১৬-২০১৭ অর্থবছরের জন্য বে-সামরিক খাতে ১১ থেকে ২০ গ্রেড বেতন স্কেলে কর্মরত সরকারি কর্মচারীর সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করেছে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড (বিকেকেবি)। গত মঙ্গলবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয় ডাক, তার ও টেলিযোগাযোগ, রেলওয়ে, বিজিবি ও পুলিশ বিভাগে নিযুক্ত ছাড়া অন্য স্থানে কর্মরতদের সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি/শিক্ষাসহায়তা এবং সরকারি ও তালিকাভুক্ত স্বায়শাসিত সংস্থার সব গ্রেডের অবসরপ্রাপ্ত ও মৃত কর্মচারীর সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির জন্য নির্ধারিত ফরমে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে দরখাস্তের নিয়মাবলিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে অধ্যয়নরত অনধিক ২ সন্তানের জন্য ফরম নং ১০-এ শিক্ষাবৃত্তি/শিক্ষাসহায়তা এবং অবসরপ্রাপ্ত ও মৃত কর্মচারীর ৯ম শ্রেণি থেকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে অধ্যয়নরত অনধিক ২ সন্তানের জন্য ৩ নয় ফরমে আবেদন করেতে হবে।

যাদের সন্তান ৬ষ্ঠ থেকে একাদশ/দ্বাদশ/সমমানের শ্রেণিতে বোর্ড/বার্ষিক পরীক্ষায় প্রত্যেক বিষয়ে জিপিএ ৫ পেয়েছে তারা শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম জিপিএ ৩/গড়ে শতকরা ৫০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবে। এ ছাড়া যারা মহাবিদ্যালয়/বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক পর্যায়ে (সমমানের) ১ম বছরে অধ্যয়নরত তারা উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় প্রত্যেক বিষয়ে লেটার গ্রেড এ পেয়ে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে থাকলে শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম জিপিএ ৩/গড়ে শতকরা ৫০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবে।

অপরদিকে স্নাতকোত্তর বা সমমানের পর্যায়ে ২য় থেকে ৪র্থ/৫ম বর্ষ পর্যন্ত যে সব শিক্ষার্থী আগের বাৎসরিক/সেমিস্টার/টার্ম ফাইনাল পরীক্ষায় সিজিপিএ ৪ এর মধ্যে ৩.৫ থেকে ৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম সিজিপিএ ২.৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবেন।

যারা মহাবিদ্যালয়/বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যায়ে স্নাতকোত্তর (সমমানের) পরীক্ষায় সিজিপিএ ৪ এর মধ্যে ৩.৫ থেকে ৪ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাবৃত্তি এবং যারা ন্যূনতম সিজিপিএ ২.৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা শিক্ষাসহায়তা পাওয়ার যোগ্য হবেন। আর সব গ্রেডের অবসরপ্রাপ্ত ও মৃত কর্মচারীদের সন্তানদের ক্ষেত্রে ৯ম শ্রেণি থেকে স্নাতকোত্তর (সমমানের) পর্যায়ে যারা ন্যূনতম জিপিএ-৩/সিজিপিএ-২.৫/গড়ে শতকরা ৫০ নম্বর পেয়ে পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়েছেন শুধু তারা শিক্ষাবৃত্তি পাওয়ার যোগ্য হবেন। এ জন্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক/কলেজ অধ্যক্ষ/বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় প্রধান কর্তৃক সত্যায়িত মার্কসিট/সার্টিফিকেটের ফটোকপি আবেদনপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে।

আবেদন ফরম যথাযথভাবে পূরণ করে আগামী ৩১ জানুয়ারির মধ্যে নিজ-নিজ অফিস কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ঢাকা শহরের ক্ষেত্রে মহাপরিচালক, বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ড, সরকারি অফিস ভবন (১১ তলা), সেগুনবাগিচা, ঢাকা এবং অন্যান্য বিভাগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ কর্মচারী কল্যাণ বোর্ডের সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় উপ-পরিচালক বরাবর পাঠাতে হবে। নির্ধারিত তারিখের পর প্রাপ্ত কোনো আবেদন বিবেচনা করা হবে না।

এমএমজেড/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :