তৃতীয় দফায় ঢাকায় প্রাথমিকের ২১০ শিক্ষককে বদলি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০৭ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০১৯

তৃতীয় দফায় দেশের বিভিন্ন জেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২১০ সহকারি শিক্ষককে ঢাকায় বদলি করা হয়েছে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) পলিসি ও অপারেশন পরিচালক খান মো. নুরুল আমিন স্বাক্ষরিত ৩১ মার্চের আদেশটি ১০টি আদেশে শনিবার ডিপিই ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

আদেশে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শূন্য পদের বিপরীতে বিভিন্ন জেলা থেকে ১০টি আদেশে ঢাকায় ২১০ শিক্ষককে বদলি করা হলো। আবেদনের প্রেক্ষিতে শিক্ষকদের বদলি আদেশ জারি করা হলো বিধায় বদলিকৃত শিক্ষকরা কোন প্রকার ভ্রমণভাতা প্রাপ্য হবেন না বলে বদলি আদেশে বলা হয়েছে। ডিপিইর মহাপরিচালকের সদয় অনুমোদনে এ আদেশ জারি করা হয়েছে। অবিলম্বে এটি কার্যকর করা হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় শিক্ষকরা বদলি হতে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ডিপিইতে ভিড় করছেন। বদলি প্রত্যশী, দালালচক্র ও শিক্ষকদের স্বজনরা দূর-দূরান্ত থেকে এসে মহাপরিচালকের রুমে ভিড় জমাচ্ছেন। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে শুরু করে মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের লিখিত তদবিরের পাহাড় জমেছে অধিদফতরে। সবচেয়ে বেশি তদবির ঢাকায় জেলায় শিক্ষক বদলির জন্য।

অন্যদিকে, ঢাকা জেলায় ইতোমধ্যে অর্ধশতের বেশি শিক্ষক বদলি করা হয়েছে। প্রায় ১২ হাজার আবেদন রয়েছে ঢাকায় বদলির জন্য। তবে দেশের বিভিন্ন জেলায় আরও বেশকিছু শিক্ষককে বদলি করা হবে বলে অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গত ৩১ মার্চ বদলি আবেদন কার্যক্রম শেষ হয়। তার ভিত্তিতে কয়েক দফায় সহস্রাধিক শিক্ষককে বদলি করা হয়েছে। তার মধ্যে প্রথম ধাপে ৪০ জন, দ্বিতীয় ধাপে ১২ ও সর্বশেষ ২১০ শিক্ষককে শুধু ঢাকার বিভিন্ন এলাকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলি করা হলো।

পৃথক ১০ আদেশে বদলি হলেন যেসব শিক্ষক-
> প্রথম আদেশ

> দ্বিতীয় আদেশ
> তৃতীয় আদেশ
> চর্তুথ আদেশ
> পঞ্চম আদেশ
> ষষ্ঠ আদেশ
> সপ্তম আদেশ
> অষ্টম আদেশ
> নব্ম আদেশ
> দশম আদেশ

এমএইচএম/জেএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :