পুলিশ ভেরিফিকেশনে ৩৮ হাজার শিক্ষকের তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৮ পিএম, ১০ আগস্ট ২০২১

দেশের বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগের জন্য সুপারিশ পেয়েছেন ৩৮ হাজার ২৮৬ জন শিক্ষক। এবার পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য তাদের তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) বিকেলে জাগো নিউজকে এ তথ্য জানান মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (মাধ্যমিক-২) ডা. সৈয়দ ইমামুল হোসেন।

তিনি বলেন, এনটিআরসিএ থেকে পাঠানো সুপারিশপ্রাপ্ত প্রার্থীদের তালিকা চলতি সপ্তাহে পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। তবে কতদিন লাগবে তা নিশ্চিত নয়। এটির জন্য নানা প্রক্রিয়া রয়েছে। তাছাড়া যেহেতু এটি অন্য মন্ত্রণালয়ের বিষয় তাই কতদিন সময় লাগতে পারে তা বলা যাচ্ছে না। পুলিশ ভেরিফিকেশন রিপোর্ট পাওয়ার পরে তাদের যোগদান কার্যক্রম শুরু হবে।

সুপারিশপ্রাপ্ত শিক্ষকরা কোনো ফৌজদারি, রাষ্ট্রদ্রোহী কর্মকাণ্ডে জড়িত কি-না তা যাচাই করতে এ উদ্যোগ নেয়া হয়। এক্ষেত্রে স্থানীয় প্রশাসনকে চিঠি দেবে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে।

এনটিআরসিএ কর্মকর্তারা বলছেন, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ পাওয়া অনেক শিক্ষক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত। এছাড়া অনেকের নামে বিভিন্ন মামলা রয়েছে। এদের বিষয়ে যাচাই করতেই এই পুলিশ ভেরিফিকেশন করা হবে। বৃহস্পতিবার রাতে ৫৪ হাজার শিক্ষকের নিয়োগের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের পর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ নির্দেশনা দেন।

এনটিআরসিএ থেকে জানা যায়, পুলিশ ভেরিফিকেশনের জন্য প্রাথমিকভাবে সুপারিশ করা প্রার্থীদের সমস্ত তথ্য নেওয়া হয়েছে টেলিটক থেকে। যেখানে ৩৮ হাজার ২৮৬ জন প্রার্থীর সমস্ত তথ্য মিলিয়ে মোট ১৪ হাজার পৃষ্ঠা হয়। পুলিশ ভেরিফিকেশন শেষ হওয়ার পরই চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের তালিকা এনটিআরসিএ’র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি শিক্ষকদের নতুন একটি তালিকা মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগে পাঠায় এনটিআরসিএ। এই তালিকা যাচাই শেষে কিছু তথ্য সংশোধন করে বিভাগ অনুযায়ী নতুন তালিকা পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী গত সপ্তাহে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগে নতুন তালিকা পাঠানো হয়। সেই তালিকা অনুযায়ী পুলিশ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করতে সেটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

দীর্ঘদিন ঝুলে থাকার পর গত ১৫ জুলাই শিক্ষক নিয়োগে তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির ফল প্রকাশ করে এনটিআরসিএ। ৫৪ হাজারের বেশি শূণ্যপদ থাকলেও আবেদন না করা এবং যোগ্যপ্রার্থী না থাকায় ৩৮ হাজার ২৮৬ জনতে নিয়োগে সুপারিশ করা হয়। এর মধ্যে সুপারিশ করা হয় এমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে ৩৪ হাজার ৬১০ জনকে এবং ননএমপিওভুক্ত প্রতিষ্ঠানে ৩ হাজার ৬৭৬ জনকে।

আর ৮ হাজার ৪৪৮টি পদে কোনো আবেদন না পাওয়ায় এবং ৬ হাজার ৭৭৭টি নারী কোটা পদে প্রার্থী না পাওয়ায় মোট ১৫ হাজার ৩২৫টি পদের ফল দেয়া সম্ভব হয়নি।

এমএইচএম/জেডএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]