মাদককাণ্ডে সোমবার ফের অনন্যা পাণ্ডেকে তলব

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৩৯ এএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

 

মাদক মামলায় গ্রেফতার শাহরুখ খানের পুত্র আরিয়ান খানের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের তদন্ত করতে গিয়েই প্রকাশ্যে আসে ‘অ্যানি’ নামে একজনের নাম। সেই ‘অ্যানি’ অনন্যা পাণ্ডে কি না, তা নিশ্চিত হতে পারেননি তদন্তকারীরা। ফলে চাঙ্কি পাণ্ডের কন্যা বলিউড অভিনেত্রী অনন্যা পাণ্ডেকে আবারও ডেকে পাঠিয়েছে ভারতের নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। আবার সোমবার ( ২৫ অক্টোবর) তাকে হাজির হতে বলা হয়।

এর আগে মুম্বাইয়ের প্রমোদতরী থেকে মাদক উদ্ধার মামলায় বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) হঠাৎই অনন্যা পাণ্ডেকে ডেকে পাঠিয়েছিল এনসিবি। বাবা চাঙ্কি পাণ্ডের সঙ্গে এনসিবির দপ্তরে গিয়েছিলেন অনন্যা। তাকে টানা তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেন এনসিবির সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার প্রথম দফায় ২ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে আরিয়ান খানের বাল্যবন্ধু অনন্যাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন এনসিবি অফিসারা। শুক্রবার প্রশ্নোত্তর পর্ব চলেছে চার ঘণ্টার বেশি। সোমবার কী হয়, এখন তা-ই দেখার অপেক্ষা। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর, দু’দিনই এনসিবি-র বলে দেওয়া সময়ের বেশ কিছু ক্ষণ পরে দফতরে পৌঁছেছেন ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’-এর অভিনেত্রী।

আবার সোমবার তৃতীয় দফায় নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) দফতরে তলব করা হল অনন্যা পাণ্ডেকে। সূত্রের খবর, এনসিবি আফিসারা জানিয়েছেন, চাঙ্কি পাণ্ডের কন্যা তদন্তকারী সংস্থার সঙ্গে পূর্ণ সহযোগিতা করছেন।

এনসিবি-র ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল অশোক জৈন জানিয়েছেন, সোমবার ( ২৫ অক্টোবর) সকাল বেলায় অনন্যাকে এনসিবি-র দফতরে পৌঁছে যেতে বলা হয়েছে।

এনসিবি-র হাতে আসা একটি কথোপকথনে আরিয়ানকে গাঁজার জোগান দেওয়ার আশ্বাসও দিয়েছেন অনন্যা। ওই কথোপকথনে অভিনেত্রী লিখেছিলেন, ‘আমি ব্যবস্থা করব।’ যদিও এনসিবি জানিয়েছে, অনন্যার বিরুদ্ধে গাঁজা সংগ্রহ বা সরবরাহের কোনও প্রমাণ এখনও হাতে আসেনি। অনন্যার পাল্টা দাবি, নিছক রসিকতা করতেই ওই সব কথা বলেছিলেন তিনি। তারই ভিত্তিতে নাকি তাকে প্রশ্ন করা হয়েছে। সমীর ওয়াংখেড়েকে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, তিনি জানতেন না যে গাঁজা কোনও প্রকার মাদক। নিজে জীবনে কোনও দিন মাদক সেবন করেননি বলেও দাবি করেছেন চাঙ্কি-কন্যা।

এমআই/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]