ডিভোর্স নিয়ে যা বললেন সালমা


প্রকাশিত: ০১:৪৪ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০১৬

ভেঙে গেছে ক্লোজআপ ওয়ান তারকা সালমার সংসার। গেল ২০ নভেম্বর স্বামী দিনাজপুর-৬ আসনের নির্বাচিত সংসদ সদস্য শিবলী সাদিকের সঙ্গে তার আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ হয়েছে। তবে খবরটি গণমাধ্যমে প্রকাশ পায় আজ শনিবার (২৬ নভেম্বর)। সালমার বিচ্ছেদ এখন টক অব দ্য টাউন।

এদিকে দিনভর মোবাইলে পাওয়া না গেলেও সন্ধ্যার দিকে ফোনে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন সালমা। তিনি জানান, গান করা নিয়ে ঝামেলা থেকেই শিবলী সাদিকের সঙ্গে তার মনোমালিন্য শুরু হয়। সেই জেরে সর্বশেষ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেয়া।

সালমা বলেন, ‘আসলে গেল ২০ তারিখ কেবল আনুষ্ঠানকিতা হলো। সম্পর্কের টানাপড়েন চলছিল দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে। বিয়ের এক বছর পর থেকেই আমার গান করা নিয়ে তার আপত্তি। সে কিছুতেই আমাকে গান করতে দেবে না। এ নিয়ে প্রায়ই তর্ক হতো। তাকে বুঝাতে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে চার-পাঁচ মাস ধরে আলাদা থাকছি আমি মায়ের বাসায়। প্রথমে মেয়েটা কিছুদিন আমার সঙ্গে থাকলেও পরে শিবলী এসে নিয়ে যায়। তারপর অনেকদিন মেয়েটাকে দেখার সুযোগ পাইনি। তবে এখন আর কোনো ঝামেলা নেই।’

বর্তমানে সালমা তার মেয়েকে নিয়ে নিজের পরিবারের সঙ্গে মোহাম্মদপুরে আছেন। তিনি জানান, ডিভোর্সের আইন অনুযায়ী সপ্তাহে তিনদিন তার কাছে থাকবে মেয়ে স্নেহা।

Salma

এদিকে আবারো গানে ফিরতে চান সালমা। তিনি বলেন, ‘কাউকে দোষ দেই না আমি। কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগও নেই। আমি নতুন করে সবকিছু শুরু করতে চাই। আবারো গানে নিয়মিত হতে চাই। আমার জন্য দোয়া করবেন।’

২০০৯ সালে দিনাজপুরের পিকনিক স্পট স্বপ্নপুরীতে একটি গানের আসরে সালমাকে দেখে পছন্দ করেন শিবলী সাদিক। একপর্যায়ে সেই পছন্দ প্রেমে পরিণত হয়। প্রায় দুই বছর চলে প্রেম। এরপর ২০১১ সালে পারিবারিকভাবেই সালমাকে বিয়ে করেন শিবলী।

জানা যায়, শিবলী নিজেও সংগীতের চর্চা করতেন। কিন্তু রাজনীতিতে আসার পর সেই চর্চায় ভাটা পড়ে। সালমাকে বিয়ের পর ২০১২ সালে একটি ডুয়েট অ্যালবামে স্ত্রীর সঙ্গে গানে কণ্ঠ দেন তিনি। অ্যালবামের নাম ‘প্রেমের জানাজা’।

এলএ/আরআইপি

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]