এবার অসমাপ্ত কাজ শেষ করবো : অলিক

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:০৪ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গেল দুই বছর নির্মাতাদের সংগঠন ডিরেক্টর’স গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন এস এ হক অলিক। আবারও দুই বছরের জন্য একই পদে নির্বাচিত হয়ে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

শুক্রবার এফডিসিতে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। আজ শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। সেখানে জানা যায়, এবার সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সালাউদ্দিন লাভলু ও সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী হয়েছেন এস এ হক অলিক।

জয়ী হওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় এস এ হক অলিক জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি সত্যিই আবেগে আপ্লুত। আমার সহকর্মীরা পরপর দুই মেয়াদে আমার ওপর আস্থা রেখেছেন, আমাকে ভালোবেসেছেন। এটা অনেক বড় আনন্দের বিষয়। আমি এই আস্থা ও ভালোবাসার প্রতিদান দিতে চাই। সকল নির্মাতা ভোটারদের কাছে অনেক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি আমি।’

অনুভূতি ব্যক্ত করে তিনি আরও বলেন, ‘সংগঠনের জন্য কিছু করার সুযোগ তৈরি হলো আবারও। আমাদের নির্মাতাদের জন্য কাজ করার সুযোগ পেলাম। গেল দুই বছর আসলে তেমন কিছুই করতে পারিনি। সময় চলে গেছে সংগঠন গুছাতে গুছাতেই। অনেক কাজ অসমাপ্ত হয়ে আছে। সেগুলো শেষ করতে চাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘সভাপতি সালাউদ্দিন লাভলু ভাইসহ নতুন কমিটিতে নির্বাচিত সকলকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। দারুণ একটি কমিটি হয়েছে বলে সবাই দাবি করছেন। আমারও একই বিশ্বাস। প্রবীন ও নবীনের মিশেলে অভিজ্ঞতা ও নতুন মেধার সমন্বয় ঘটবে এবার। লাভলু ভাই চমৎকার মানুষ। নাটক ও নাট্য নির্মাতাদের প্রিয় তিনি। তার নেতৃত্বে অনেক সাফল্য আসবে আমাদের। আর যারা নির্বাচিত হননি তারাও নির্মাতাদের প্রতিনিধি। কেউ না কেউ তো তাদের রায় দিয়েছিলেন। নির্মাতাদের স্বার্থে যে কোনো পরিকল্পনা, দাবি তারা নিয়ে আসতে পারবেন। সবাইকে নিয়েই আমরা একটি সফল সংগঠন হিসেবে ডিরেক্টর’স গিল্ডকে জনপ্রিয় করে তুলতে চাই।’

প্রসঙ্গত, এবারের নির্বাচনে লড়াই করেছেন ৫২ জন প্রার্থী। তারমধ্যে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত লাভলুর প্রতিপক্ষ ছিলেন সৈয়দ আওলাদ। তিনটি সহ-সভাপতি পদে অ্যালবার্ট খান, জামালউদ্দীন জামাল, চয়নিকা চৌধুরী ও সকাল আহমেদকে পরাজিত করেছেন বদরুল আনাম সৌদ, কচি খন্দকার ও শহীদ রায়হান।

সাধারণ সম্পাদক পদে এস এ হক অলিক পরাজিত করেছেন এস এম কামরুজ্জামান সাগর ও মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজকে। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে তুহিন হোসেন জয়ী হয়েছেন দীন মোহাম্মদ মন্টু ও রিয়াজুল রিজুকে হারিয়ে।

দুটি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী হয়েছেন হৃদি হক ও ফরিদুল হাসান। তারা পরাজিত করেছেন নোমান রবিন ও হামেদ হাসান নোমানকে। অর্থ সম্পাদক পদে জয়ী হয়েছেন মো. সাজ্জাদ হোসেন সনি। তিনি হারিয়েছেন ফিরোজ খানকে। প্রচার সম্পাদক পদে রাকিবুল হাসান চৌধুরী নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পরাজিত করেছেন ফয়েজ আহমেদ রেজাকে।

এছাড়া ১০টি কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন গাজী রাকায়েত, রাশেদা আক্তার লাজুক, শেখ রুনা, শিহাব শাহীন, প্রীতি দত্ত, মারুফ মিঠু, ফেরারী অমিত, মাহমুদ দিদার, সাজ্জাদ সুমন, সহিদ-উন-নবী।

এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন খ্যাতিমান চলচ্চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেন। এছাড়া নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন নাট্যব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদ ও নির্মাতা কাওসার চৌধুরী। আপিল বিভাগের চেয়ারম্যান ছিলেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম। এই কমিটির সদস্য হিসেবে ছিলেন নাট্যজন আবুল হায়াত ও সাইদুল আনাম টুটুল।

এমএবি/এলএ/জেআইএম

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :