সাত্য‌কি ও ওয়াদা‌লি ব্রাদা‌র্সে মাত‌লো দর্শক

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:০০ এএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৮
ছবি মাহবুব আলম

ঢাকা আন্তর্জাতিক ফোক ফেস্টের চতুর্থ আসরের প্রথম দিনের শেষ দু‌টি পরিবেশনা ছি‌ল ভার‌তের সাত্য‌কি ব্যানা‌র্জি ও ওয়াদা‌লি ব্রাদা‌র্সের। কোক স্টু‌ডিও‌র ইউ‌টিউব চ্যা‌নে‌লের কল্যা‌ণে সাত্য‌কি বাংলা‌দে‌শের মানু‌ষের কা‌ছে বেশ জন‌প্রিয়। সমানতা‌লে দোতারা বা‌জি‌য়ে গান গেয়ে চ‌লেন তি‌নি।

তারপ‌রই স্টে‌জে হা‌জির হয় ভার‌তের জন‌প্রিয় গা‌নের দল ওয়া‌লি ব্রাদার্স। পদ্মশ্রী ওস্তাদ পূরণচন্দ্র ওয়াদা‌লি ও প্যাও‌রেলাল ওয়াদা‌লি সংগীত জগ‌তের প‌রি‌চিত নাম। প্যাও‌রেলাল ওয়াদা‌লি ২০১৮ সা‌লের ৯ মার্চ মারা গে‌ছেন। তাই ফোক ফেস্ট মা‌তি‌য়ে গে‌লেন পূরণচন্দ্র ওয়াদা‌লি ও তার ছে‌লে লা‌ক্ষিণদার ওয়াদা‌লি। তা‌দের সু‌ফি গা‌নের মূর্ছনায় মাত হ‌য়ে যায় দর্শক।

ওয়া‌লি ব্রাদা‌র্সের গা‌নের সু‌রে ডু‌বেই শেষ হয় প্রথম দি‌নের ফোক ফেস্ট। বৃহস্প‌তিবার সন্ধ্যা সা‌ড়ে ৬টায় নৃত্যদল ভাবনার মাধ্যমে শুরু হয় এবা‌রের লোকগা‌নের উৎসব। প্রথম দি‌নেই রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়াম ছিল উপ‌চেপড়া ভিড়।

অনুষ্ঠানে ভাবনার নৃত্য পরিবেশনা সত্যিই খুব নান্দনিক ছিল। তাদের পরিবেশনার পর শুরু হয় লোকশিল্পী আবদুল হাই দেওয়ানের মনোমুগ্ধকর পরিবেশনা। 'পিরিতের বাজার ভালো না', 'কোন দেশে রইলারে দয়াল', 'ভালোবাসিয়ারে বন্ধু', বন্ধুরে তোর জ্বলায় বাঁচি না', এবং 'তোমারও লাগিয়া' গানের মাধ্যমে প্রথম দিনের দ্বিতীয় পরিবেশনায় শ্রোতাদের মুগ্ধ করেন আব্দুল হাই দেওয়ান।

f

তার গান আর্মি স্টেডিয়ামে উপস্থিত প্রতিটি দর্শককে বিমোহিত করেছে। তারপরই মঞ্চে সুরের জাদু ছড়ায় পোল্যান্ডের ব্যান্ডদল 'সিকান্দা'। তাদের পরিবেশনাও ছিল নান্দনিকতা।

সিকান্দার পরিবেশনার পরই শুরু হয় মঞ্চে উপস্থিত অতিথিবৃন্দের বক্তৃতার পর্ব। এ আয়োজনে বক্তব্য দেন ঢাকা উত্তরের মেয়র সাঈদ খোকন, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর এবং প্রধান অতিথি অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

এরপর কিছুক্ষণ বিরতি শেষে মঞ্চে ওঠেন সাত্যকি। তারপ‌র ওয়াদালি ব্রাদার্স। সুফিগানের সুরের মূর্ছনায় তারা দর্শকদের ষোলোআনা আনন্দে মাতিয়ে তোলেন। তারা 'ইয়া মোহাম্মদ' গান দিয়ে প্রথম দিনের শেষ পরিবেশনার প্রথম গান শুরু করেন।

এই উৎসবের পর্দা নামবে ১৭ নভেম্বর। এবারের উৎসবে বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৭টি দেশ থেকে শিল্পীরা অংশ নেবেন। গান করবেন মোট ১৭৪ জন সংগীতশিল্পী। এদের মধ্যে বাংলাদেশের শিল্পীরা হলেন মমতাজ বেগম, বাউল আব্দুল হাই দেওয়ান, বাউল কবির শাহ, নকশীকাঁথা, স্বরব্যাঞ্জো।

এমএ‌বি/বিএ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :