চিত্রনায়ক মিঠুনকে হারানোর চার বছর

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৩ পিএম, ২৪ মে ২০১৯

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত একটি সিনেমার নাম ‘বাবা কেনো চাকর’। এই সিনেমাটিতে অভিনয় করে ব্যপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন চিত্রনায়ক শেখ আবুল কাশেম মিঠুন। তার অভিনীত আরও বেশ কিছু ছবি বেশ জনপ্রিয় হয়েছিলো। সেই নায়ক মিঠুনের আজ চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী।

চার বছর আগে ২০১৫ সালের ৫ মে কলকাতার একটি হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালীন তার মৃত্যু হয়। পরের দিন দেশে ফিরিয়ে এনে তাকে দাফন করা হয়। দেখতে দেখতেই প্রিয় এই অভিনেতার মৃত্যুর চার বছর পেরিয়ে গেলো।

এখনো তাকে মনে রেখেছে তার প্রিয় জনেরা। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির মিঠুনের মৃত্যুদিনে তাকে স্মরণ করছেন। আজ শুক্রবার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ইফতার মাহফিলে দোয়া করা হবে তার জন্য। মিঠুন ছাড়াও এখন পর্যন্ত যেসব শিল্পীরা পৃথিবী ছেড়ে চলে গেছেন তাদের জন্য দোয়া করা হবে।

শেখ আবুল কাশেম মিঠুন ১৯৫১ সালের ১৮ এপ্রিল সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার দরগাহপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৭৮ সালে খুলনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক কালান্তরে লেখালেখির মধ্য দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করেন। অভিনয় করা ইচ্ছে নিয়ে ঢাকাই এসে চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন।

আশির দশকে চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় মিঠুনের। তিনি প্রায় অর্ধশতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।প তার অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে আছে তরুলতা, অন্যান্য, চ্যালেঞ্জ, নরম গরম, গৃহলক্ষী, চন্দনা, ডাকু, স্বর্গ-নরক, দিদার, স্যারেন্ডার, বাবা কেন চাকর, বেদের মেয়ে জোসনা প্রভৃতি।

এমএবি/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]