আজ চলচ্চিত্র দিবস : করোনায় এফডিসি জুড়ে শূন্যতা

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪৭ পিএম, ০৩ এপ্রিল ২০২০
ফাইল ছবি

আজ ৩ এপ্রিল জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫৭ সালের এই দিনে তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদে চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন (এফডিসি) গঠনের প্রস্তাব উত্থাপন করেন। এই দিনকে স্মরণ করে ২০১২ সালে প্রথমবার জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস উদযাপন করা হয়।

প্রত্যেক বছরই চলচ্চিত্র দিবসকে ঘিরে এফডিসি রঙিন হয়ে হঠে। চলচ্চিত্রাঙ্গণের মানুষেরা নানা আয়োজনে পালন করে থাকেন দিনটি। কিন্তু এই বছর বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রকপের কারণে চলচ্চিত্র দিবসও পালিত হচ্ছে না।

চলচ্চিত্রের নানা সংগঠন দিনটিকে ঘিরে মাসখানেক আগে থেকে প্রস্তুতি নিলেও এবার তার ব্যতিক্রম হয়েছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস গোটা বিশ্বকে স্তব্ধ করে দিয়েছে। এখন পর্যন্ত সারাবিশ্বে ৯ লাখ ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এ ভাইরাসে। তার মধ্যে প্রাণ হারিয়েছে ৪৮ হাজারেরও বেশি মানুষ।

প্রাণ বাঁচাতে ঘরবন্দি হয়েছে মানুষ। তাই তথ্য মন্ত্রণালয় থেকেও এই বছর চলচ্চিত্র দিবস পালনের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে পরবর্তীতে নির্দিষ্ট একটা সময় দিবসটি উদযাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার।

তিনি বলেন, আয়োজন ছাড়াই অতি সাধারণভাবে দিবসটি পালনের ইচ্ছে ছিল, ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য। কিন্তু তথ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে আপাতত সব ধরনের আয়োজন বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। তাই আজ (৩ এপ্রিল) চলচ্চিত্র দিবস পালন করা হচ্ছে না। পরবর্তীতে দিবসটি পালনের ইচ্ছে আছে আমাদের।’

উল্লেখ্য, প্রতিবছরই এফডিসিতে স্মরণিকা প্রকাশ, লাইভ টক শো, লাল গালিচা সংবর্ধনা, মেলা, স্থিরচিত্র প্রদর্শনী, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, পুতুল নাচ, নাগরদোলা, বায়োস্কোপ ও সাংস্কৃতিক পরিবেশনা করা হয় চচ্চিত্র দিবসে। চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতি, পরিচালক সমিতি, শিল্পী সমিতিসহ ঢাকাই সিনেমার সব সংগঠন মিলে একসঙ্গে উৎযাপন করে দিবসটি। এছাড়া বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিও দিবসটি উৎযাপন করে। এবছর থমকে গেছে সব।

এমএবি/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]