দীপিকা-সারা-রাকুলের ফোন জব্দ

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১২ এএম, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

মাদকের ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে ভারতের নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) দফতরে পৌঁছান অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। সুশান্ত সিং রাজপুতের হত্যার তদন্তে বলিউডের তারকাদের মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি উঠে আসে। এতে দীপিকার নামও উঠে এসেছে। তার জন্য অভিনেত্রীকে সমন পাঠিয়েছিল এনসিবি।

এছাড়া সারা আলি খান ও রাকুল প্রীতকেও সমন পাঠানো হয়। হাজির হলে এই তিন অভিনেত্রীর ফোন জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো ফরেনসিকে পাঠানো হবে পরীক্ষার জন্য।

এদিন জেরায় ড্রাগ চ্যাটের কথা স্বীকার করলেও তিনি ড্রাগ নেননি বলে দাবি করেছেন দীপিকা পাড়ুকোন। আবারও তাকে ডাকা হতে পারে। এদিকে মাদক যোগে নাম জড়ানোয় অভিনেত্রী রকুল প্রীতকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। তার বিরুদ্ধেও মাদক নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। জিজ্ঞাসাবাদে রকুল প্রীত স্বীকার করেছেন, তিনি রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে মাদকের বিষয় কথা বলেছেন।

ড্রাগ নেয়ার কথা অস্বীকার করেছেন শ্রদ্ধা কাপু। তবে সুশান্তকে সেটে ড্রাগ নিতে দেখেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। কেদারনাথ ছবির শ্যুটিং এর সময় সুশান্তের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতার কথা স্বীকার করেন সারা আলী। একসঙ্গে পার্টিতেও গিয়েছেন। তবে তিনি নিজে মাদক নেননি বলেই জানিয়েছেন।

এদিকে ধর্ম প্রোডাকশনের সাবে কর্মী ক্ষিতিজ প্রসাদকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জানা গেছে, তিনি করণ জোহরের ধর্ম প্রোডাকশনের কর্মী। কিন্তু গত শুক্রবার রাতে এই বিষয়ে একটি বিবৃতি দেন করণ। তিনি সাফ জানান, ক্ষিতিজ তার ঘনিষ্ঠ কেউ নয়। শনিবারই ক্ষিতিজকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বেশ কয়েক দিন আগে করণ জোহরের বাড়িতে হওয়া একটি পার্টির ভিডিও ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়। সেখানে দীপিকা, মালাইকা, শাহিদ কাপুর, ভিকি কৌশল, রণবীর কাপুরদের মত তারকাদের দেখা যায়। সম্প্রতি ড্রাগ কেলেঙ্কারি সামনে আসতে শুরু করায় ফের ভাইরাল হয় সেই ভিডিও। করণ বিবৃতিতে দিয়ে জানান, ওই পার্টিতে কেউ ড্রাগ নেয়নি।

এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]