পরীমনির রিমান্ড: দুই বিচারকের ক্ষমা প্রার্থনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৩০ এএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
চিত্রনায়িকা পরীমনি/ফাইল ছবি

উচ্চ আদালতের নির্দেশনা না মেনে মাদক মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমনিকে বারবার রিমান্ডে নেওয়ার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দুই বিচারক ক্ষমা প্রার্থনার আর্জি জানিয়েছেন। তারা লিখিতভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন বলে সুপ্রিম কোর্ট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, পরীমনির রিমান্ডের বিষয়ে হাইকোর্টের চাওয়া ব্যাখ্যায় ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের দুই বিচারক আতিকুল ইসলাম ও দেবব্রত বিশ্বাস লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়ে আবেদন করেন। আবেদনে তারা নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করে ব্যাখ্যায় বলেছেন, এটি তাদের অনিচ্ছাকৃত ভুল।

বিষয়টি শুনানির জন্য বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের ভার্চুয়াল বেঞ্চের কার্যতালিকায় (কজলিস্ট) রয়েছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মো. মিজানুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, আমরা এখনো নথি দেখিনি।

অন্যদিকে, আইনজীবী জহিরুল ইসলাম (জেডআই) খান পান্না জাগো নিউজকে বলেন, আমরা এখনো নথি হাতে পাইনি। তবে বিচারক লিখিতভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন বলে শুনেছি।

এর আগে গত ২৯ আগস্ট পরীমনিকে বারবার রিমান্ডে নেওয়ার বিষয়ে হাইকোর্টে স্ব-প্রণোদিত আদেশের জন্য আর্জি জানানো হয়। মানবাধিকার সংগঠন আইন ও শালিস কেন্দ্রের (আসক) পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দা নাসরিন এ আবেদন করেন।

এরপর ২ সেপ্টেম্বর একই বেঞ্চ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় পরীমনিকে বারবার রিমান্ডে নেওয়ার বিষয়ে বিচারিক আদালতের ব্যাখ্যা ও নথি (কেসডকেট সিডিসহ) তলব করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলার দুই তদন্ত কর্মকর্তাকে ১৫ সেপ্টেম্বর সশরীরে উপস্থিত হতে বলা হয়। এছাড়া তিন দফায় রিমান্ডের আদেশ দেওয়ায় সংশ্লিষ্ট বিচারকের কাছে ব্যাখ্যাও চান আদালত।

এফএইচ/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]