চশমার ব্যবহার শুরু হয় কবে থেকে

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৫৭ পিএম, ২৪ আগস্ট ২০১৯

কারো জন্য চশমা গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। কারো জন্য ফ্যাশন বা স্টাইল। কারণ যা-ই হোক না কেন, চশমা এখন বেশির ভাগ মানুষের নিত্যসঙ্গী হয়ে উঠেছে। তবে কবে থেকে এই চশমার ব্যবহার শুরু হয়েছে- তা কি সবাই জানেন? না জানলে আজই জেনে নিন চশমার আবিষ্কার, প্রচলন ও বিবর্তনের ইতিহাস-

জানা যায়, হায়ারোগ্লিফিক লিপিতে চিত্রিত বর্ণনায় প্রাচীন মিসরীয় সভ্যতায় চশমার ব্যবহারের প্রমাণ পেয়েছেন ইতিহাসবিদরা। মিসরীয় সভ্যতায় কাচ ও আতশ কাচের ব্যবহারের প্রমাণও মিলেছে। তবে তাকে আধুনিক চশমার আদিরূপ বলা যায় না।

আধুনিক চশমার আবিষ্কার ও ব্যবহারের প্রথম প্রমাণ পাওয়া যায় ইতালিতে। দ্বাদশ শতকে একটি কাঠের ফ্রেমে দু’টি কাচ আটকে প্রথম দৈনিক ব্যবহারের জন্য চশমার উদ্ভাবন ও ব্যবহার শুরু হয়। তখন চশমা সবসময় হাতে ধরে রাখতে হতো।

chasma

ইতিহাসবিদরা মনে করেন, ১২৮৬ সাল নাগাদ ইতালির এক ধর্মপ্রচারক, সংস্কারক জিওর্দানো দ্য পিসা চশমার নকশাকে আরও উন্নত করেন। মূলত দৃষ্টিশক্তির প্রতিবন্ধকতার প্রতিকার করার জন্যই তিনি এর ব্যবহার আরও সহজ করতে চেয়েছিলেন।

জিওর্দানো দ্য পিসার তৈরি চশমার নকশাকে আধুনিক চশমার আদিরূপ বলে মনে করেন অনেক ইতিহাসবিদ। তবে এ নকশাতেও চশমা সর্বক্ষণ হাতে ধরেই ব্যবহার করতে হতো। ইতালি ও পরে স্পেনে ধীরে ধীরে চশমার ব্যবহার ছড়িয়ে পড়ে।

chasma

জিওর্দানো দ্য পিসার চশমা তৈরির প্রায় সাড়ে চারশ’ বছর পর পরিবর্তন আসে নকশায়। দু’কানের সঙ্গে জুড়ে যায় চশমার ফ্রেমের দুই হাতলের মতো অংশ। ফলে হাতে ধরে থেকে চশমার ব্যবহারের দিন শেষ হয়। এ নকশা তৈরি করেন ব্রিটিশ চশমা বিক্রেতা ও বাদ্যযন্ত্র প্রস্তুতকারক অ্যাডওয়ার্ড স্কারলেট।

এরপর ধীরে ধীরে চশমার হাতলের মতো অংশে কবজাজুড়ে দেওয়া হয়। যাতে সেটি ভাঁজ করে রাখা যায়। এরপর ধাপে ধাপে নানা বিবর্তনের মধ্য দিয়ে চশমার নকশা ক্রমশ আধুনিক হয়ে উঠতে থাকে। প্রয়োজনের পাশাপাশি রূপ নিতে থাকে ফ্যাশন ও স্টাইলে

এসইউ/জেআইএম