শূকরের হৃৎপিণ্ড নিয়ে বেঁচে আছেন তিনি

ফিচার ডেস্ক
ফিচার ডেস্ক ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৪৫ পিএম, ১১ জানুয়ারি ২০২২

চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম এক সাফল্য অঙ্গ প্রতিস্থাপন। এই পদ্ধতির আবিষ্কার শুরু হয়েছে বহুকাল আগেই। মানুষের জন্য শুধু মানুষের অঙ্গ নয় বরং বিভিন্ন পশুর অঙ্গও নেওয়া হয়। সম্প্রতি শিকাগোতে একজন ব্যক্তির হার্টে শূকরের হার্ট সফলভাবে প্রতিস্থাপন করেছেন চিকিৎসকরা।

অনেকদিন থেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন ওই মার্কিন নাগরিক। অনেকদিন চিকিৎসা নেওয়ার পরও যখন আশানুরূপ ফল পাচ্ছিলেন না, তখন চিকিৎসকরা তার হার্ট প্রতিস্থাপনের পরামর্শ দেন। শেষে ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড মেডিসিনের একটি দল চিকিৎসক সফলভাবে শূকরের হার্ট প্রতিস্থাপন করেন।

বিজ্ঞানীরা আশা করছেন শূকরের অঙ্গগুলো দাতার অঙ্গগুলোর ঘাটতি দূর করতে সাহায্য করবে। সময়মতো যারা ঠিকঠাক অঙ্গ না পাওয়া গেলে এই বিকল্প ব্যবহার করা যেতে পারে। মেরিল্যান্ডের ৫৭ বছর বয়সী ডেভিড বেনেটর অস্ত্রোপচারের তিনদিন পরই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে যান।

উল্লেখ্য, এই প্রথম কোনো মানুষের শরীরে শূকরের হার্ট প্রতিস্থাপন করা হলো। এই সাফল্য নিয়ে আশাবাদী ড. বার্টলি গ্রিফিথ। তিনি বলেন, এটি একটি যুগান্তকারী অস্ত্রোপচার। যা ভবিষ্যতে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের ঘাটতি সঙ্কট সমাধানের এক ধাপ কাছাকাছি নিয়ে আসে।

ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড মেডিসিন থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে ডেভিড বেনেটর বলেন, হয় মরতে হবে অথবা এই ট্রান্সপ্লান্ট করতে হবে। আমি বাঁচতে চাই। আমি জানি এটি অন্ধকারে গুলি ছোড়ার মতো। কিন্তু এটিই আমার শেষ সুযোগ। বেনেট তার অস্ত্রোপচারের এক দিন আগে এই কথাগুলো কলেছিলেন চিকিৎসকদের।

jagonews24

পরীক্ষামূলক অস্ত্রোপচারের সঙ্গে সঙ্গে ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড মেডিসিন ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন থেকে একটি জরুরি অনুমোদন পেয়েছে। তারা পরীক্ষামূলকভাবেই ডেভিডের শরীরে শূকরের হার্ট প্রতিস্থাপন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীর অঙ্গ প্রতিস্থাপনের প্রোগ্রামার ড. মুহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, এফডিএ পরীক্ষামূলক শূকরের উপর আমাদের তথ্য এবং উপাত্ত ব্যবহার করে একজন শেষ পর্যায়ের হৃদরোগের রোগীর প্রতিস্থাপনের অনুমোদন দেয় যার অন্য কোনো চিকিৎসার বিকল্প ছিল না।

অরগানডনার ডটগভার্নমেন্টের মতে, প্রায় ১ লাখ ১০ হাজার আমেরিকান বর্তমানে একটি অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য অপেক্ষা করছে এবং প্রতি বছর ৬ হাজারেরও বেশি রোগী অরগান পাওয়ার আগে মারা যায়।

বেনেটের জেনেটিক্যালি মডিফাইড পিগ হার্ট রেভিভিকর, ভার্জিনিয়ার ব্ল্যাকসবার্গে অবস্থিত একটি পুনরুত্পাদনকারী ওষুধ কোম্পানি দ্বারা সরবরাহ করা হয়েছিল। অস্ত্রোপচারের সকালে, ট্রান্সপ্লান্ট দল শূকরের হৃৎপিণ্ডটি সরিয়ে একটি বিশেষ ডিভাইসে স্থাপন করে যাতে অস্ত্রোপচার না হওয়া পর্যন্ত এটির কার্যকারিতা সংরক্ষণ করা যায়।

হার্ট ছাড়া শূকরের অন্যান্য অঙ্গ মানুষের মধ্যে প্রতিস্থাপনের জন্য গবেষণা করা হচ্ছে কিডনি, লিভার ও ফুসফুস নিয়েও। যদিও শূকর থেকে মানুষের শরীরে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের পূর্বে অনেক পরীক্ষা নিরীক্ষার প্রয়োজন হয়। কারণ জেনেটিক পার্থক্যের কারণে অঙ্গ প্রত্যাখ্যান বা ভাইরাস যা সংক্রমণের ঝুঁকি তৈরি করেছিল।

বেবুন গবেষণায় রিভিভিকোরের জেনেটিকালি-পরিবর্তিত শূকরের হার্টের মূল্য ধরা হয়েছে ১৫.৭ মিলিয়ন। এই অর্থের বেশিরভাগই যাবে গবেষণার কাজে। শূকরের হৃৎপিণ্ডে জেনেটিক পরিবর্তন ছাড়াও, বেনেট লেক্সিংটন ম্যাসে অবস্থিত কিনিক্সা ফার্মাসিউটিক্যালস দ্বারা তৈরি একটি পরীক্ষামূলক অ্যান্টি-রিজেকশন ড্রাগ পেয়েছিলেন।

সূত্র: নিক্কি এশিয়া/ সিএনএন

কেএসকে/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]