দুর্নীতির তদন্তের মধ্যেই চীনের সেনা কর্মকর্তার আত্মহত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫০ এএম, ২৮ নভেম্বর ২০১৭

দুর্নীতির তদন্তের মধ্যেই আত্মহত্যা করেছেন চীনের এক ঊর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তা। মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। দেশজুড়ে দুর্নীতি বিরোধী অভিযানে সামরিক বাহিনীতে তোলপাড় শুরু হয়েছে। খবর রয়টার্স।

শিনহুয়া নিউজ এজেন্সির এক খবরে বলা হয়েছে, দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত সামরিক কর্মকর্তা গুয়ো বক্সিয়ং ও জু কাইহউয়ের সঙ্গে ঝ্যাং-এর সংযোগ ছিল কি না তা নিয়ে তদন্ত শুরু হয়। কিন্তু তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই আত্মহত্যা করেন ঝ্যাং।

পাঁচ বছর আগে শি জিনপিং চীনের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পরই দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের ঘোষণা দেন। এরই ধারাবাহিকায় কয়েক বছর ধরে বহু ব্যবসায়ী ও শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তা দুর্নীতির দায়ে গ্রেফতার হয়েছেন।

কমিশনের বরাত দিয়ে শিনহুয়া জানিয়েছে, তদন্ত থেকে জানা গেছে যে, ঝ্যাং ইয়াং গুরুতরভাবে নিয়মানুবর্তিতা লঙ্ঘন করেছেন। ঘুষ গ্রহণ এবং প্রদান করার কারণেও তিনি সন্দেহভাজনের তালিকায় ছিলেন। তবে এই বিপুল পরিমাণ অর্থের উৎস এখনও পরিস্কার নয়।

খবরে আরো জানানো হয়েছে, চলতি মাসের ২৩ তারিখ বিকালে ঝ্যাং ইয়াং নিজের বাড়িতেই ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেন।

রয়টার্সকে একটি সূত্র জানিয়েছে, সেনাবাহিনীর পলিটিক্যাল ওয়ার্ক ডিপার্টমেন্টের পরিচালক ঝ্যাংয়ের বিরুদ্ধে একটি তদন্ত চলছিল। তবে সরকার এ বিষয়ে কোনো ঘোষণা দেয়নি।

ঝ্যাংয়ের আত্মহত্যাকে অত্যন্ত ঘৃণ্য কাজ বলে উল্লেখ করে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এবং সেনাবাহিনীর অফিসিয়াল ওয়েবসােইট থেকে বলা হয়েছে, ২৮ আগস্টের তদন্তের ফলাফলের কারণে যে শাস্তি ধার্য্য হয়েছিল তা থেকে বাঁচতেই আত্মহত্যা করেছেন তিনি।

সাবেক এই জেনারেল তার উচ্চপদ এবং যথেষ্ট ক্ষমতা থাকা স্বত্ত্বেও লজ্জাজনক ভাবে নিজের জীবনের ইতি টেনেছেন এবং তিনি সবাইকে আনুগত্যের প্রতি উৎসাহিত করলেও পেছনে দুর্নীতি করেছেন বলে মন্তব্য করা হয়েছে।

টিটিএন/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :