আঞ্চলিক নিরাপত্তায় একসঙ্গে লড়াইয়ের অঙ্গীকার পাক-ইরান সেনাবাহিনীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৪ পিএম, ১৭ জুলাই ২০১৮

আঞ্চলিক শত্রুদের দমনে ও নিরাপত্তা বজায় রাখার লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক সামরিক সহযোগিতা জোরদারের অঙ্গীকার করেছে পাকিস্তান এবং ইরান। সোমবার ইরানের সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ বাঘেরি পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার বাজওয়ার সঙ্গে এক বৈঠকে এ অঙ্গীকার করেন।

পাকিস্তানে ইরানের সেনাপ্রধানের তিনদিনের এই সফরকে দুই দেশের সামরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। দুই দেশের সামরিক বাহিনীর দীর্ঘদিনের অবিশ্বাসের কারণে পারস্পরিক সম্পর্ক প্রায় বিচ্ছিন্নই ছিল। এর মাঝে বিরল সফরে পাকিস্তানে এসে দেশটির শীর্ষ সামরিক কর্তকর্তা ও সরকারের উচ্চ পর্যায়ের মন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মোহাম্মদ বাঘেরি।

সোমবার পাকিস্তানের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ হুসাইন হারুনের সঙ্গে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে স্বাক্ষাৎ করেন তিনি। পরে সেনাবাহিনীর প্রধান মেজর জেনারেল কামার বাজওয়ার কার্যালয়ে যান তিনি।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর জনসংযোগ বিভাগ আইএসপিআর বলছে, ‘দুই দেশের সামরিক বাহিনী থেকে সামরিক বাহিনী পর্যায়ের সহযোগিতা জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন পাক সেনাপ্রধান। তিনি বলেছেন, এ ধরনের পারস্পরিক সহযোগিতা এই অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তায় ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে।’

pak-iran

জেনারেল বাজওয়ার প্রস্তাবে সায় দিয়ে ইরানের সেনাবাহিনীর শীর্ষ ওই কর্মকর্তা দুই ভ্রাতৃপ্রতিম দেশের আরো ভালো সম্পর্কের জন্য কাজ চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন।

পাক-ইরান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক; বিশেষ করে সামরিক সম্পর্ক উন্নত করার জন্য জেনারেল বাজওয়াকে মূল ক্রীড়ানক হিসেবে দেখা হয়। পারস্পরিক সহযোগিতা জোরদারের লক্ষ্যে গত বছর নজিরবিহীন এক সফরে ইরানে যান তিনি। পরবর্তীতে ওই বছরের জুনে চিফ অব জেনারেল স্টাফ জেনারেল বিলাল আকবর ইরান সফর করেন।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর জনসংযোগ দফতরের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘এই অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তা বজায় রাখতে ও সাধারণ শত্রুদের পরাজিত করার লক্ষ্যে একসঙ্গে কাজ করতে রাজি হয়ে দুই দেশ।’

সূত্র : ডন

এসআইএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :