বন্যার্তদের জন্য অনন্য নজির কেরালার মাছ ব্যবসায়ী ছাত্রীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:০৪ পিএম, ১৯ আগস্ট ২০১৮

কলেজে ক্লাস শেষে মাছ বিক্রি করতে যেতেন বাজারে। এটি তার নিত্যদিনের রুটিন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কয়েক দিন আগে ট্রল হয়েছিলেন হান্নান হামিদ নামের এক কলেজ ছাত্রী। ভারতের কেরালা প্রদেশের এই ছাত্রী এবার গড়লেন অনন্য এক নজির।

রাজ্যের বন্যাক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে কেরালার এই শিক্ষার্থী ত্রাণ তহবিলে দান করেছেন দেড় লাখ রূপি। ২১ বছর বয়সী হানান মুখ্যমন্ত্রীর বিপর্যয় মোকাবেলা ত্রাণ তহবিলে এ অর্থ দিয়েছেন। তবে এটা তাঁ নিজের অর্থ নয়, পরিবার নিয়ে তিনি চরম অর্থকষ্টে আছেন; পড়াশোনা চালাতে পারছেন না, এ কথা সোস্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর তিনি যে অর্থসাহায্য পেয়েছেন, তা থেকেই এই অর্থ দিয়েছেন।

হানান বলেছেন, মানুষের দান তাদের প্রয়োজনেই ফিরিয়ে দিলাম। সংসারের প্রয়োজন মেটাতে একসময় ফুলও বিক্রি করতেন। তিনি বন্যাক্রান্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে সবার প্রতি অাহ্বান জানিয়েছেন।

ইডুক্কি জেলার থোডুপুঝার বেসরকারি কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের এই ছাত্রীর জীবন সংগ্রামের কাহিনি ছড়িয়ে পড়েছিল একটি মালয়ালম দৈনিকে তাকে নিয়ে লেখালেখি হওয়ার পর। যিনি পড়াশোনার অর্থের সংস্থান করতে মাছ বিক্রি করেন জানাজানি হওয়ার সোস্যাল মিডিয়ায় ট্রল হয়েছিলেন।

তাকে বাহবা যেমন দিয়েছেন অনেকেই, তেমনই সংশয়ের সুরে তার বিরুদ্ধে সহানুভূতি কুড়াতে সাজানো কাহিনি ছড়ানোর অভিযোগও করে কেউ কেউ।

কেরালায় যখন বন্যা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে ঠিক তখনই মহানূভবতার নজির তৈরি করলেন কেরালার কোচির সেই কলেজ ছাত্রী।

এসঅাইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :