‘মি-টু’ অান্দোলনের নেত্রীর বিরুদ্ধে যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৪২ পিএম, ২০ আগস্ট ২০১৮

হলিউডের প্রযোজক হার্ভি ওয়েইনস্টেইনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘মি-টু’ আন্দোলনের সূচনায় নেতৃত্ব দেয়া ইতালিয়ান অভিনেত্রী আসিয়া আর্জেন্টোর বিরুদ্ধেই এবার যৌন কেলেংকারির অভিযোগ উঠেছে।

মার্কিন প্রভাবশালী দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, আসিয়া আর্জেন্টো তার বিরুদ্ধে যেন যৌন হামলার অভিযোগ না করা হয়, সেজন্যে অভিনেতা এবং রক সঙ্গীত তারকা জিমি বেনেটকে ৩ লাখ ৮০ হাজার ডলার দিয়েছিলেন।

জিমি বেনেট তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হুমকি দেয়ার পর আসিয়া আর্জেন্টো এ অর্থ দেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, এ ঘটনা ঘটেছিল ক্যালিফোর্নিয়ার এক হোটেলে। তখন আসিয়া আর্জেন্টোর বয়স ছিল ৩৭ বছর। আর জিমি বেনেটের বয়স ১৭ বছরের সামান্য বেশি।

সেই সময় আসিয়া আর্জেন্টো হোটেল কক্ষে জিমি বেনেটকে যৌন হেনস্থা করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। ক্যালিফোর্নিয়ার স্থানীয় আইন অনুযায়ী যৌনকর্মে সম্মতির ন্যূনতম বয়স ১৮ বছর।

জিমি বেনেটের বয়স এখন ২২ এবং আসিয়া আর্জেন্টোর ৪২। এই অভিযোগের ব্যাপারে মন্তব্যের জন্য নিউ ইয়র্ক টাইমস আসিয়া আর্জেন্টো এবং তার প্রতিনিধির সঙ্গে বার বার যোগাযোগ করেও কোন সাড়া পায়নি।

যে চুক্তির অধীনে জিমি বেনেটকে চুপ থাকার বিনিময়ে ৩ লাখ ৮০ হাজার ডলার দেন, তা এ বছরের এপ্রিল মাসে চূড়ান্ত করা হয়।

এই অভিযোগের সমর্থনে বিছানায় শুয়ে দু’জনের তোলা একটি সেলফি এবং আরও কিছু ডকুমেন্ট নিউ ইয়র্ক টাইমস তাদের হাতে এসেছে বলে দাবি করছে। জিমি বেনেট এবং আসিয়া আর্জেন্টো ২০০৪ সালে ‘দ্য হার্ট ইজ ডিসিটফুল এবাভ অল থিংস’ বলে ছবিতে কাজ করেন। ছবিতে আসিয়া আর্জেন্টো অভিনয় করেছিলেন জিমি বেনেটের মায়ের ভূমিকায়।

‘মি-টু’ আন্দোলন যখন শুরু হয়েছিল, তখন আসিয়া আর্জেন্টো ছিলেন এর সবচেয়ে শক্তিশালী কন্ঠগুলোর একটি। তিনি অভিযোগ করেছিলেন, ২১ বছর বয়সে যখন তিনি কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে যান, তখন হার্ভি ওয়েনস্টেইন তাকে একটি হোটেল কক্ষে ধর্ষণ করেন।

আসিয়া আর্জেন্টো যখন হার্ভে ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তোলেন, তারপরই জিমি বেনেট আসিয়া আর্জেন্টোর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থার হুমকি দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

এসআইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :