ছবিতে ইন্দোনেশিয়ার ভূমিকম্প-পরবর্তী সুনামির ধ্বংসলীলা

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫৭ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ইন্দোনেশিয়ায় ৭ দশমিক ৫ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পের পর উপকূলীয় পালু শহরে সুনামির আঘাত হানে। শুক্রবার সন্ধ্যার দিকে ভূমিকম্পের পর ১০ ফুট উঁচু ঢেউ সুলাওয়াসি দ্বীপের পালু শহর যেন ভাসিয়ে নিয়ে যায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪০০ ছাড়িয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, পাহাড়সম উঁচু ঢেউ যখন উপকূলে আঘাত হানে তখন ‘বিচ ফেস্টিভ্যাল’ উপলক্ষে অনেকেই সৈকতে জড়ো হয়েছিলেন। যাদের বেশিরভাগই নিজেদের প্রাণ রক্ষা করতে ব্যর্থ হয়েছেন। কেউ কেউ উঁচু গাছে চড়ে নিজেদের রক্ষা করেছেন।

sunamiসুনামির পর স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকদের উদ্ধার তৎপরতা

শনিবার সমুদ্র তট থেকে অনেকগুলো মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এদিন সকালেও সুলাওয়াসি দ্বীপ একাধিকবার কেঁপে ওঠে। দেশটির দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংস্থা বিএনপিবি’র মুখপাত্র সুতোপো পুরও নুগরোহো এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, গতকাল ভূমিকম্পের পর সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়। কিন্তু ওই সময়ও লোকজন সৈকতে তাদের কাজকর্ম চালিয়ে যান। প্রকাণ্ড ঢেউ যখন উপকূলে আছড়ে পড়ে তখন তারা আর নিজেদের রক্ষা করতে পারেননি।

sunamiখোলা আকাশের নিচে আশ্রয় নিয়েছেন আক্রান্তরা

ভূমিকম্প-পরবর্তী সুনামিতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ‘অত্যন্ত ভয়াবহ’ উল্লেখ করে নুগরোহো বলেন, পালুর বেশিরভাগ বাড়িঘর, হাসপাতাল, শপিংমল ও হোটেল ধসে গেছে। সুনামিতে একটি সেতু ভেঙে ভেসে গেছে। ভূমিধসে পালুর প্রধান মহাসড়ক দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

sunamiধ্বংসস্তূপ থেকে প্রয়োজনীয় উপকরণ খুঁজে ফিরছেন এক ভুক্তভোগী

দুর্গত মানুষের সহায়তায় এগিয়ে এসেছে দেশটির সেনাবাহিনী। স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবকরা সুনামির আঘাতের পরপরই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। খোলা আকাশের নিচে শত শত মানুষকে আশ্রয় নিতে দেখা যায়।
এদিকে সুনামির আঘাতে দুর্গতকালীন প্রায় সব অবকাঠামো ধ্বংস হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থার পাশাপাশি ভেঙে পড়েছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থাও। ফলে ব্যাহত হচ্ছে জরুরি চিকিৎসাসেবা।

sunamiধ্বংসস্তূপের মধ্যে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে মসজিদের মিনার

২০০৪ সালের ২৬ ডিসেম্বর ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ সুনামির আঘাত হানে ইন্দোনেশিয়ার উত্তরাঞ্চলের দ্বীপ সুমাত্রার আচেহতে। ৯ দশমিক ১ মাত্রার ভূমিকম্প মেগাথ্রাস্টের পরপরই সৃষ্টি হয় ভয়াবহ সুনামি। যা সোমালিয়ার উপকূলীয় অঞ্চল পর্যন্ত পৌঁছে যায়।

sunamiখোলা আকাশের নিচে আহতের দেয়া হচ্ছে চিকিৎসাসেবা

ওই সুনামি ভারত মহাসাগরের অনেক দেশে আঘাত হানে। কেবল ইন্দোনেশিয়াতেই প্রাণহানি হয় এক লাখ ৭০ হাজারের বেশি মানুষের। এতে বিভিন্ন দেশের আরও ৫০ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়। সবমিলিয়ে আনুমানিক মৃতের সংখ্যা দুই লাখ ছাড়িয়ে যায়।

sunamiসবকিছু হারিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছেন এক নারী

sunamiসুনামির আঘাতে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের খুঁজে ফিরছে শিশুটি

sunami
সুনামির আঘাতে ধ্বংসপ্রাপ্ত একটি মসজিদ

sunami
সুনামির আঘাতের পর ত্রাণ নিয়ে এগিয়ে এসেছে দেশটির সেনাবাহিনী

sunami
সুনামির আঘাতের পর প্রায় ধ্বংসপ্রাপ্ত পালু শহর

sunami
সুনামির আঘাতে বিধ্বস্ত পালু শহরের একটি মার্কেট

sunami
সুনামির পর উপকূলীয় তটে রেখে যাওয়া ধ্বংসলীলা

sunami
সুনামির আঘাতের পর শনিবার সকালে উদ্ধার করা এক মরদেহ

sunami
সুনামির আঘাতের পর রেখে যাওয়া ধ্বংসলীলা

sunami
বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসাসেবা

sunami
সুনামির আঘাতের আগে যেমন ছিল পালু শহরের ব্রিজটি

sunami
সুনামির পর ধ্বংসপ্রাপ্ত ব্রিজ

এমএআর/আরআইপি