জীবন শঙ্কায় সাবেক ইন্টারপোল প্রধানের স্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১০ পিএম, ১০ অক্টোবর ২০১৮

চীনে আটককৃত আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের সদ্য পদত্যাগকারী প্রধান মেং হংওয়ের স্ত্রী দুই সন্তান নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। সম্প্রতি সিএনএনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মেংয়ের স্ত্রী গ্রেস মেং এ আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন। এমনকি স্বামী নিখোঁজ হওয়ার পর ফোনে তাকে প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হয় বলে জানিয়েছেন মেং।

সাক্ষাৎকারে মেং জানান, তার স্বামী নিখোঁজ হওয়ার পর একদিন তার ফোনে একটি কল আসে। ফোন রিসিভ করতেই অপরপ্রান্ত থেকে বলা হয়, তাকে ‘টার্গেট’ করতে দুইটি টিম আসছে।

মেং বলেন, ‘তার স্বামীকে আটক করার বিষয়টি তিনি তার সাত বছর বয়সী দুই সন্তানকে জানাননি। তারা জানে না, আসলে তার বাবার কী হয়েছে। এমনকি টেলিভিশনে তখন তার স্বামীর নিউজ দেখানো হয়, তখন তিনি তার সন্তানদের মুখ ঢেকে রাখেন, যাতে করে তারা তাদের বাবাকে এ অবস্থায় না দেখতে পারে।’

কান্নাজড়িত কণ্ঠে ইন্টারপোল প্রধানের স্ত্রী বলেন, ‘তবে তারা হয়তো কিছু একটা বুঝতে পারে, যখন তারা আমাকে কাঁদতে দেখে। তখন আমি তাদের বলি, কিছু হয়নি।’

‘আমি তাদের অন্তরকে আঘাত করতে চাই না। আমি খুবই...আপনারা জানেন এ দুটি শিশুই আমার কলিজা, আমার আবেগ।’ -যোগ করেন মেং।

তিনি যখন সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন তখন ক্যামেরা থেকে তিনি তার মুখ ঘুরিয়ে রেখেছিলেন। সাক্ষাৎকার চলাকালীন তার ফোনে তিনবার রিং বেজে ওঠে। এ সময় তিনি জানান, চীনা কনস্যুলেট তাকে তাৎক্ষনিকভাবে দেখা করতে বলছেন। তবে একা সাক্ষাৎ করতে ভয় পান মেং। তিনি মিডিয়াকর্মী ও একজন আইনজীবীর উপস্থিতিতে কনস্যুলেটের সঙ্গে দেখা করতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

স্বামী মেং হংওয়ে প্রসঙ্গে এই নারী বলেন, ‘আমি তাকে খুবই মিস করি। আমি রাতে ঘুমাতে পারি না। প্রায় রাতেই ঘুম থেকে জেগে যায়। বসে থেকে নির্ঘুম রাত কাটাই।

গত শুক্রবার মেংয়ের স্ত্রী দাবী করেন যে, সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে তিনি চীনে যাওয়ার পর থেকে তার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এক সপ্তাহ ধরে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তার কোন যোগাযোগ হচ্ছিল না।

সেপ্টেম্বরে ফরাসী শহর লিঁওর ইন্টারপোল সদর দফতর থেকে বেরিয়ে চীনে রওনা হওয়ার পর থেকেই তিনি নিখোঁজ ছিলেন। গত সপ্তাহে তিনি চীনে গেলে বিমানবন্দর থেকে তাকে আটক করে চীনা কর্তৃপক্ষ।

আন্তর্জাতিক আইন প্রয়োগকারী এই সংস্থাটির প্রথম চীনা বংশোদ্ভূত প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন ৬৪ বছর বয়সী এই কর্মকর্তা।

ইন্টারপোলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এর নির্বাহী কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট দক্ষিণ কোরিয়ার কিম জং ইয়াং ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

রোববার ইন্টারপোলের তরফ থেকে জানানো হয়, রোববার রাতে পদত্যাগ করেছেন মেং হোয়াওয়ে। তাৎক্ষণিকভাবে তার পদত্যাগ কার্যকর করা হবে বলেও জানায় সংস্থাটি। তবে কী কারণে তিনি পদত্যাগ করেছেন সে বিষয়ে কিছু জানানো ইন্টারপোল।

পরের দিন সোমবার বেইজিংয়ের সরকারি কর্মকর্তারা জানান, ইন্টারপোলের প্রধান মেং হংওয়ের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ থাকায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেফতার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের দুর্নীতিবিরোধী কঠোর অভিযানের অংশ হিসেবে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এসআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :