শিশু জয়নবের ধর্ষককে ফাঁসিতে ঝুলাচ্ছে পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:০৫ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৮

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সাত বছরের শিশু জয়নবকে ধর্ষণের পর হত্যায় অভিযুক্ত ইমরান আলীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আদেশ দিয়েছেন দেশটির সন্ত্রাসবাদবিরোধী আদালত। শুক্রবার অভিযুক্ত ওই ধর্ষকের বিরুদ্ধে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করা হয়। ১৭ অক্টোবর তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে।

চলতি বছরের ৪ জানুয়ারি পাঞ্জাব প্রদেশের কাসুর এলাকার ছয় বছর বয়সী শিশু জয়নব কুরআন শেখার জন্য পার্শ্ববর্তী একটি বাড়িতে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয়। ৯ জানুয়ারি শিশু জয়নবের মরদেহ কাসুরের একটি ময়লার ভাগাড় থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এ শিশুর ধর্ষণের ঘটনার পর স্থানীয়দের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে পাঞ্জাব।

জয়নব অপহরণের সময় তার বাবা-মা সৌদি আরবে ওমরাহ পালন করতে গিয়েছিলেন। মেয়ের মৃত্যুর খবরে তারা দেশে ফিরে আসেন। ধর্ষক গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের দাফন সম্পন্ন করবেন না বলে পুলিশকে আল্টিমেটাম দেন তারা। গ্রেফতারের দুই সপ্তাহ পর সন্দেহভাজন ইমরানের ডিএনএর সঙ্গে ধর্ষণের আলামতের মিল পাওয়া যায়।

বিক্ষোভে উত্তাল কাশ্মিরে সেই সময় সহিংসতায় প্রাণ যায় দুজনের। পাকিস্তানের ইংরেজি দৈনিক ডন বলছে, সন্ত্রাসবিরোধী আদালতের বিচারক শেখ সাজ্জাদ আহমেদ আলী শিশু জয়নবকে ধর্ষণ ও হত্যায় জড়িত ইমরান আলীর সর্বোচ্চ সাজা কার্যকরের ব্যাপারে আদেশ জারি করেছেন। ১৭ অক্টোবর লাহোরের কেন্দ্রীয় কারাগারে তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে।

আদালতের প্রসিকিউটর আব্দুল রউফ ওয়াতু বলেন, জয়নবের মামলায় রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভির কাছে ফাঁসির দণ্ড মওকুফের আবেদন করেছিলেন অভিযুক্ত ইমরান। ১০ অক্টোবর রাষ্ট্রপতি এই আবেদন বাতিল করে দিয়েছেন।

ডন বলছে, পাঞ্জাবের কাসুরের বাসিন্দা ইমরান আলীর বিরুদ্ধে ওই এলাকায় আরো কমপক্ষে ৯ শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ রয়েছে।

অপহরণ, ধর্ষণ, খুন ও ছোট শিশুর সঙ্গে অস্বাভাবিক অপরাধ সংঘটনের প্রমাণ পাওয়া যায় গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ধর্ষক ইমরানকে মৃত্যুদণ্ড, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, সাত বছরের কারাদণ্ড ও ৪১ লাখ রুপি জরিমানা করেন আদালত।

কট লাখপাত কারাগারে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে জয়নব ধর্ষণ ও হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। জয়নবের বাবা রায় ঘোষণা সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ৫৬ প্রত্যক্ষদর্শীর জবানবন্দি নেয়ার পর আদালতের বিচারকরা ধর্ষক ইমরানের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। আদালতের কাছে শিশু জয়নব ছাড়াও কাসুরের আরো ছয় শিশুকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেন ইমরান।

সাতটি মামলায় ইমরান আলীকে ২১ বার ফাঁসি, তিনটিতে যাবজ্জীবন ও একটি মামলায় ২৩ বছরের সাজা দেয়া হয়। বহুল অালোচিত পাকিস্তানের এই মামলায় এক হাজারের বেশি সন্দেহভাজনকে গ্রেফতারের পর তাদের ডিএনএ পরীক্ষা করা হয়েছিল।

সূত্র : এএফপি, ডন।

এসআইএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :