হত্যা ধামাচাপা দিতে ‘নকল খাশোগি’ সাজিয়েছিল সৌদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ২২ অক্টোবর ২০১৮

হাজার চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা হয়নি সৌদি আরবের। তুরস্কের সৌদি কনসল্যুটে ঢোকার পর ১৭ দিন ধরে সাংবাদিক জামাল খোশেগি হত্যার বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করলেও শেষ রক্ষা হয়নি তাদের। এবার নতুন এক তথ্য হাজির করেছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। তাদের এক প্রতিবেদনে দেখা যায়, খাশোগিকে হত্যা করার পর তদন্তকারীদের ফাঁকি দিতে নকল খাশোগি সাজিয়েছিল তারা।

প্রতিবেদনে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়। সেখানে দেখা যায়, সৌদি কনসল্যুটের সামনে ঠিক খাশোগির মতই একজনকে হাঁটতে দেখা যায়। তদন্ত কর্মকর্তাদের বোকা বানাতে খাশোগির পোশাক, দাড়ি-গোফ লাগানোর মাধ্যমে ‘নকল খাশোগি’ বানিয়েছিলেন সৌদি কর্মকর্তারা।

ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ২ অক্টোবর জামাল খাশোগি কনস্যুলেটে ঢোকার দুই ঘন্টা আগে সাধারণ পোশাকে ভেতরে ঢুকতে দেখা যায় মোস্তফা মাদানি নামের এক ব্যক্তি। খাশোগিকে হত্যা করার পর ওই ব্যক্তি কনস্যুলেট থেকে বের হন। এসময় তাকে দেখে মনে হয় যেন খাশোগিই বের হয়ে যাচ্ছেন। এর কিছুক্ষণ পর শহরের চারপাশে ঘোরাঘুরি করে হঠাৎ একটি টয়লেটে ঢুকে ছদ্মবেশ পাল্টে ফেলেন তিনি।

সিএনএন এর প্রতিবেদনে বলা হয়, মোস্তফা মাদানি নামের ওই ব্যক্তি খাশোগি হত্যাকারী সৌদি কিলিং স্কোয়াডেরই একজন। ১৫ সদস্যের ওই স্কোয়াড ২ অক্টোবর অর্থাৎ খাশোগি নিখোঁজ হওয়ার দিন সৌদি আরব থেকে ইস্তাম্বুলস্থ কনস্যুলেটে আসেন।

উল্লেখ্য, বিয়ের কাগজপত্র নিতে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তান্বুলস্থ সৌদি কনসল্যুটে ঢোকার পর নিখোঁজ হন সৌদি রাজতন্ত্রের সমালোচক হিসেবে পরিচিত সাংবাদিক জামাল খাশোগি। নিখোঁজ হওয়ার ১৭ দিন পর বৈশ্বিক চাপের মুখে অবশেষে গত শুক্রবার খাশোগি হত্যার কথা স্বীকার করে সৌদি। তবে সৌদি কর্তপক্ষ বলছে, খাশোগির মরদেহ কোথায় আছে এ বিষয়ে তারা কিছু জানে না।

এসএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :