ক্যালিফোর্নিয়ায় বারে বন্দুক হামলা, নিহত ১৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩৭ পিএম, ০৮ নভেম্বর ২০১৮

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের থাউজ্যান্ড ওকসের একটি বারে বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত ১৩ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। নিহতদের মধ্যে দেশটির পুলিশের ডেপুটি শেরিফ রন হেলুসও রয়েছেন। পরে পুলিশের গুলিতে বন্দুকধারীও মারা গেছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো কয়েক ডজন মানুষ।

দেশটির প্রভাবশালী দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে, হামলাকারীর পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এছাড়া হামলার উদ্দেশ্যও জানা যায়নি।

california-attack-1

মার্কিন এই দৈনিক বলছে, স্থানীয় সময় বুধবার রাত ১১টা ২০ মিনিটের দিকে ওই হামলাকারী বারে আক্রমণ করে। ১২টা ৫০ মিনিটের দিকে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই'র পাশাপাশি সোয়াত টিমের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

আরও পড়ুন : ক্যালিফোর্নিয়ায় বারে গোলাগুলি

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, বার থেকে আহত অবস্থায় লোকজন বেরিয়ে আসছেন। পরে তাদের স্থানীয় মেডিক্যালে নেয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সকালের দিকে ক্যালিফোর্নিয়া পুলিশের কর্মকর্তা কুরেদজিয়ান বলেন, আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস যে, বর্ডারলাইন বার অ্যান্ড গ্রিলের ভেতরে কোনো শ্যুটার নেই। লস অ্যাঞ্জেলসের ৬৫ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে এই বারের অবস্থান।

সিএনএন বলছে, বারে স্থানীয় একটি কলেজের সংগীত সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছিল। এতে কমপক্ষে ২০০ মানুষ অংশ নিয়েছিলেন।

california-attack-2

ভেঞ্চুরা কাউন্টি শেরিফ অফিসের মুখপাত্র এরিক বাসচো বলেন, ডেপুটি শেরিফ ঘটনাস্থলে পৌঁছার পরও বারের ভেতরে গুলির শব্দ শুনেছেন।

বিবিসি বলছে, সন্দেহভাজন হামলাকারী কয়েকডজন গুলি ছুঁড়েছেন। পরে নিজের গুলিতেই হামলাকারী মারা গেছেন বলে ধারণা করছে পুলিশ। হামলার সময় অনুষ্ঠানে আসা লোকজন বারের দরজা জানালা ভেঙে বেরিয়ে আসেন; অনেকেই টয়লেটের ভেতর আশ্রয় নেন।

এসআইএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]