সৌদিকে কড়া বার্তা দিয়েছে কাতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:০২ পিএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৮

বিশ্বের শীর্ষ তেল রফতানিকারক দেশগুলোর সংগঠন ওপেক থেকে বেরিয়ে গিয়ে কাতার প্রতিদ্বন্দ্বী সৌদি আরবকে কড়া বার্তা দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানি অর্থনীতিবিদ আবিদ হাসান। তবে তিনি এটাও বলেছেন, কাতারের এমন সিদ্ধান্তে আন্তর্জাতিক তেলের বাজার অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন বিশ্বব্যাংকের অপারেশন অ্যাডভাইজার ও পাকিস্তান অর্থনৈতিক উপদেষ্টা কমিটির সদস্য আবিদ হাসান। তিনি বলেন, কাতার ওপেক থেকে বেরিয়ে যাওয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা নিতান্তই রাজনৈতিক।

গত বছরের জুন মাস থেকে কাতারের ওপর সর্বাত্মক অবরোধ আরোপ করেছে সৌদি আরব। এ নিয়ে দেশ দুটির মধ্যে মারাত্মক শত্রুতা দেখা দিয়েছে। তবে কাতারের জ্বালানিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সাদ আল-কাবি বলেছেন, রাজনৈতিক কারণে তার দেশ ওপেক থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন>> এলিয়েনরা পৃথিবী ঘুরে গেছে, আমরা দেখতে পাইনি : নাসা

পাকিস্তানি এই অর্থনীতিবিদ আরও বলেন, উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদ বা জিসিসি’র সদস্য হিসেবে সৌদি আরব ও কাতারের মধ্যে যেসব ঘটনা ঘটছে তার সঙ্গে দোহার সিদ্ধান্ত জড়িত। কাতার সম্ভবত সৌদি আরবকে এ বার্তা দিতে চায় যে, দোহাও চাইলে তেলের বাজার অস্থিতিশীল করে তুলতে পারে।

সম্প্রতি কাতার বলেছে, ২০১৯ সালের শুরুর দিকেই তারা ওপেক থেকে বেরিয়ে যাবে। এর আগে, সৌদি আরব ও রাশিয়া তেল উত্তোলন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফলে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমে গেছে।

সূত্র: পার্সটুডে

এসএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :