‘জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ঘোষণার অধিকার কারো নেই’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার অধিকার কোনো দেশের নেই বলে মন্তব্য করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে অস্ট্রেলিয়া স্বীকৃতি দেয়ার পর দেশটির সমালোচনা করে তিনি এ মন্তব্য করেছেন।

চলতি বছরের মে মাসে তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে দূতাবাস সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তার এই ঘোষণার পর ফিলিস্তিন-সহ পুরো ইসলামি বিশ্ব ক্ষোভে ফেটে পড়ে। ব্যাঙ্ককে একটি সম্মেলনের ফাঁকে বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, জেরুজালেম ইসরায়েলের রাজধানী নয়, জেরুজালেম এখন যেভাবে ফিলিস্তিনের আছে সেভাবেই রাখা উচিত।

তিনি বলেন, ‘জেরুজালেম সব সময় ফিলিস্তিনের, কিন্তু কেন তারা জেরুজালেম ফিলিস্তিনের নয় বলে বিভক্ত করার উদ্যোগ নিচ্ছে। তবে তারা কী আরব এবং ইহুদীদের বিভক্ত করতেই এ উদ্যোগ নিয়েছে? তাদের এটা করার কোনো অধিকার নেই।’

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ একটি দেশ মালয়েশিয়া। ফিলিস্তিন-ইসরায়েল সংঘাতে দীর্ঘদিন ধরে এই দেশটি দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানের দাবি জানিয়ে আসছে। ইহুদি, খ্রিস্টান ও মুসলিমরা জেরুজালেমকে পবিত্র স্থান হিসেবে মনে করেন। এই তিন ধর্মের ধর্মীয় স্থাপনা রয়েছে এখানে, যা ব্যাপক তাৎপর্যপূর্ণ।

ফিলিস্তিন-ইসরায়েল শান্তি চুক্তি না হওয়ার পেছনে জেরুজালেমকেই গুরুত্বপূর্ণ এবং বড় বাধা হিসেবে দেখা হয়। কেননা ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুজালেমকে তাদের রাজধানী হিসেবে চায়। কিন্তু ১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর থেকে পূর্বাঞ্চলীয় একটি সেক্টর-সহ পুরো জেরুজালেমকে রাজধানী মনে করে ইসরায়েল; কিন্তু আন্তর্জাতিক বিশ্ব ইসরায়েলের এই দাবির স্বীকৃতি দেয়নি।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্টক মরিসন দেশটির কয়েক দশকের মধ্যপ্রাচ্য নীতিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েছেন। গত সপ্তাহে তিনি তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে অস্ট্রেলিয়ার দূতাবাস সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে জেরুজালেমকে ইসরায়েলি রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন তিনি।

তবে শিগগিরই তেলআবিব থেকে জেরুজালেমে অস্ট্রেলীয় দূতাবাস সরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন মরিসন। তার জেরুজালেমকে ইসরায়েলি রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিতে তার নেয়া সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছে অনেক মুসলিম দেশ।

সূত্র : রয়টার্স।

এসআইএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :