আবারও যুক্তরাষ্ট্রের স্পিকার হলেন ন্যান্সি পেলোসি

লস্কর আল মামুন
লস্কর আল মামুন লস্কর আল মামুন , যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি ক্যালিফোর্নিয়া (যুক্তরাষ্ট্র)
প্রকাশিত: ১২:০৭ পিএম, ০৪ জানুয়ারি ২০১৯

আবারও যুক্তরাষ্ট্রের স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন ডেমোক্রেট দলের ন্যান্সি পেলোসি। গত বৃহস্পতিবার ডেমোক্রেটের ঘাঁটি ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সিনেটর ন্যান্সি পেলোসি যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।

রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ক্যাভিন ম্যাকার্থিকে ২২০ ভোটে পরাজিত করে বিজয় লাভ করেন তিনি। এ বিজয়ের ফলে যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভ এখন ডেমোক্রেট পার্টির নিয়ন্ত্রনে থাকল। এর আগেও ২০০৭ সালে প্রথম মার্কিন নারী হিসেবে স্পিকার নির্বাচিত হন ন্যান্সি পেলোসি। স্পিকার হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেন চার বছর। সে সময় তিনি রিপাবলিকান পার্টির প্রেসিডেন্ট বুশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে শক্তিশালী ভূমিকা রেখেছিলেন।

দ্বিতীয় দফায় স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত হয়ে ন্যান্সি পেলোসি বলেন, নারীদের ভোটাধিকার পাওয়ার ১শ বছরে সুনির্দিষ্টভাবে কেবল কংগ্রেসের এ কক্ষের একজন নারী স্পিকার হয়ে আমি গর্বিত। আমাদের সবারই এখন সক্ষমতা ও সুযোগ হয়েছে কংগ্রেসের আরও শতাধিক নারীর সঙ্গে কাজ করার, ইতিহাসে নারীর এ সংখ্যাই সর্বোচ্চ।

এবারের ১১৬তম প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্রেট এবং রিপাবলিকানে সব মিলিয়ে ১০২ জন নারী সংসদ সদস্য রয়েছেন। এটা মার্কিন কংগ্রেসের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। অপরদিকে, ডেমোক্রেট ২৩৫ সাংসদের মধ্যে ৮৯ জনই নারী।

স্পিকার নির্বাচিত হয়ে ডেমোক্রেট এই নেত্রী ওয়াশিংটনের তৃতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তিতে পরিণত হলেন। মেক্সিকো সীমান্তে প্রাচীর নির্মাণের তহবিল নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বক্তব্যে দেশজুড়ে অচলাবস্থা চলছে। এ সময় ন্যান্সি পেলোসির স্পিকার নির্বাচিত হওয়া ট্রাম্প প্রশাসনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের পথে একটি বড় ধাক্কা বলে মনে করছেন বিষেজ্ঞরা।

ন্যান্সি পেলোসি বলেছেন, তিনি ট্রাম্পের সীমান্ত প্রাচীরকে সমর্থন করবেন না। তিনি এ অচলাবস্থার অবসান চান। ন্যান্সি পেলোসির এ বিজয়ে ক্যালিফোর্নিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিসহ অন্য অভিবাসীরা আনন্দিত। সম্প্রতি, ক্যালিফোর্নিয়ার একটি অনুষ্ঠানে এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপচারিতায় অভিবাসীদের জন্য বিশেষ কিছু করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ন্যান্সি পেলোসি।

টিটিএন/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]