উ. কোরিয়া বিশ্বের ‘বৃহৎ অর্থনৈতিক শক্তি’ হতে পারে : ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:৩১ পিএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

পারমাণবিক অস্ত্র ত্যাগ করলে উত্তর কোরিয়া বিশ্বের ‘বৃহৎ অর্থনৈতিক শক্তি’ হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশের চেয়ে এই দেশটির দ্রুত প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনাও আছে। চলতি সপ্তাহে ভিয়েতনামে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের সঙ্গে বৈঠকে বসার আগে সোমবার এক টুইট বার্তায় এসব মন্তব্য করেছেন ট্রাম্প।

আট মাস আগে সিঙ্গাপুরে ঐতিহাসিক এক বৈঠকে মিলিত হন চিরবৈরী এ দুই দেশের দুই রাষ্ট্রপ্রধান। তবে ট্রাম্প উত্তর কোরিয়াকে নিয়ে সম্ভাবনার কথা বললেও তার কয়েক ঘণ্টা আগে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, এখনো পারমাণবিক হুমকি হিসেবে রয়েছে পিয়ংইয়ং।

ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে আগামী ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে দ্বিতীয়বারের মতো বৈঠক করবেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। টুইটে তিনি বলেছেন, আমরা দু’জনই সিঙ্গাপুরের প্রথম শীর্ষ সম্মেলনের অগ্রগতির ধারাবাহিকতা ধরে রাখার ব্যাপারে আশাবাদী। গত বছরের জুনে সিঙ্গাপুরে তাদের ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে রোববার এক অনুষ্ঠানে ট্রাম্প বলেন, তিনি কিম জং উনের সঙ্গে ‘খুব খুব ভালো সম্পর্ক’ তৈরি করেছেন। সিঙ্গাপুরে ঐতিহাসিক সেই বৈঠকের পর কোরীয় দ্বীপকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করে শান্তি প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেন এ দুই নেতা। কিন্তু তাদের সেই অস্পষ্ট চুক্তির ফল সেভাবে দেখা যায়নি।

এদিকে, ট্রাম্প-কিমের আসন্ন বৈঠক থেকে ১৯৫০ থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত সংঘটিত কোরীয় যুদ্ধের অবসানের ঘোষণা দিতে পারে যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর কোরিয়া। সোমবার সিউলে এক সংবাদ এ তথ্য জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট দফতরের এক মুখপাত্র।

সূত্র : বিবিসি, রয়টার্স।

এসআইএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :