বিজেপিকে ভোট, শায়েস্তা করতে গিয়ে গণধোলাই খেল তৃণমূল নেতাকর্মীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২৯ পিএম, ২৬ মে ২০১৯

ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) সমর্থিত প্রার্থীকে ভোট দেয়ায় শায়েস্তা করতে গ্রামে ঢুকে পাল্টা গণধোলাই খেয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাকর্মীরা। রাজ্যের সন্দেশখালির খুলনা পঞ্চায়েতের শীতলিয়া গোলাবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। গণধোলাইয়ের শিকার তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজ বলছে, তৃণমূল নেতাদের অভিযোগ, ঘাসফুলের সঙ্গে প্রচারে থেকে গ্রামের কিছু মানুষ ভোট দিয়েছে বিজেপিকে। এর বিহিত করতে গোলবাড়ি গ্রামে যায় তৃণমূলের এক স্থানীয় নেতা ও তার বাইকবাহিনী। গ্রামে ঢুকে কয়েকজনের বাড়ি ভাঙচুর ও মারধর করে। এরপর এ ঘটনার প্রতিবাদে রুখে দাঁড়ান গ্রামের নারীরা।

আরও পড়ুন : রাহুলের হারের পর স্মৃতি ইরানির ঘনিষ্ঠকে গুলি করে হত্যা

গ্রামবাসীরা রুখে দাঁড়ালে তৃণমূলের ওই নেতাকর্মীরা আগ্নেয়াস্ত্র বের করে হুমকি দিতে থাকেন। এতে উত্তেজিত হয়ে ওঠেন গ্রামের বাসিন্দারা। তারা ওই তৃণমূল নেতা ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের ধরে বেধড়ক পেটায়। আগুন ধরিয়ে দেয়া হয় তাদের মোটরসাইকেলে।

পুলিশ বলছে, গ্রামবাসীদের মারধরে স্থানীয় পঞ্চায়েত উপপ্রধান সত্যজ্যোতি সান্যাল ও তার ভাই দেবজ্যোতি-সহ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের বসিরহাট সুপার স্পেসালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : সৌদির বিমানবন্দরে হামলা

শনিবার দুপুরের দিকে ২০-২৫ জনের একটি একটি দল খুলনা পঞ্চায়েতের গোলাবাড়ির কলোনিপাড়ায় যায়। গ্রামে ঢুকে তারা কল্পনা বিশ্বাস, বিশ্বিজিৎ বিশ্বাস ও তপতী মাইতিকে মারধর ও তাদের বাড়ি-ঘর ভাঙচুর করে।

পরে গ্রামের নারীরা উত্তেজিত হয়ে দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোটা নিয়ে তাড়া দেয় তৃণমূল নেতাকর্মীদের। এ সময় পালাতে গিয়ে কয়েকজন ধরা পড়ে যায়। পরে তাদের গণধোলাই দেয় গ্রামের বাসিন্দারা।

এসআইএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :