হজ নিয়ে ফের উত্তপ্ত সৌদি-কাতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫২ পিএম, ১৪ জুলাই ২০১৯

হজ পালনে নিজ দেশের নাগরিকদের কাতার বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে সৌদি আরব। এমনকি হজ পালনে কাতারিদের ওপর  দেশটি সরকার বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে বলে দাবি রিয়াদের। তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা সৌদি আরবের বিরুদ্ধেই কড়াকড়ি আরোপের অভিযোগ এনেছে দোহা।

রোববার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস অ্যাজেন্সি বলছে, নিজ দেশের নাগরিক ও বাসিন্দাদের হজ এবং ওমরাহ পালনে কাতার সরকার প্রতিবন্ধকতা তৈরি করেছে বলে অভিযোগ করেছে সৌদি হজ ও ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

সৌদির এই মন্ত্রণালয় বলছে, কাতারসহ বিশ্বের অন্যান্য প্রান্তের হজ ও ওমরাহ যাত্রীদের জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তারপরও কাতারি নাগরিকদের হজ ও ওমরাহ পালনে সৌদিতে আসতে দিচ্ছে না দেশটির সরকার।

আরও পড়ুন : বেবি পাউডারে ক্যান্সারের ঝুঁকি, জেনেও ব্যবস্থা নেয়নি জনসন!

চলতি বছরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে হজ পালনের জন্য প্রায় ১৭ লাখ এবং ওমরাহর জন্য ৮০ লাখ মানুষ সৌদিতে পাড়ি জমাবেন। আরব নিউজ বলছে, ইতোমধ্যে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া-সহ আরো কয়েকটি দেশের প্রায় ৩৭ হাজার হজযাত্রী সৌদিতে পৌঁছেছেন।

তবে কাতারের আওকাফ ও ইসলামি কল্যাণবিষয়ক মন্ত্রণালয় বলছে, পবিত্র নগরী মক্কা ও মদিনায় হজ এবং ওমরাহ পালনেচ্ছুক কাতারের নাগরিকরা সৌদি আরবের প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হচ্ছেন। কাতারের এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে সৌদি।

রিয়াদ বলছে, গত ওমরাহ মৌসুমে সৌদি আরব ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছিল। যেমন কাতারের হজ যাত্রীদের জন্য অন অ্যারাইভাল পদ্ধতি চালু করেছিল। কাতারে সৌদি আরবের ওমরাহ নিবন্ধন বিষয়ক ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেয়ার পর রিয়াদ ওই ব্যবস্থা নিয়েছিল।

আরও পড়ুন : দরজায় আটকে হাত, ছুটল ট্রেন, মর্মান্তিক মৃত্যু যাত্রীর

হজ নিয়ে যেকোনো ধরনের রাজনৈতিক প্রচেষ্টা নাকচ করে দিয়েছে সৌদি। দেশটি বলছে, দোহার সরকারি বিমান পরিবহন সংস্থা ছাড়া অন্য বিমান পরিবহন সংস্থার বিমানে করে সৌদিতে হজ এবং ওমরাহ পালনের জন্য আসতে পারবেন কাতারের নাগরিকরা।

২০১৭ সালের ৫ জুন কাতারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও মদদ দেয়ার অভিযোগ এনে অবরোধ আরোপ করে সৌদি নেতৃত্বাধীন কয়েকটি দেশ। এই অবরোধ আরোপের জেরে মধ্যপ্রাচ্যে প্রায় একঘরে হয়ে পড়ে কাতার। তখন থেকেই দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়; যার ধাক্কা লাগে পবিত্র হজ এবং ওমরাহতেও।

সূত্র : সিনহুয়া।

এসআইএস/পিআর