ইরানে হামলা না চালাতে ট্রাম্পকে সৌদি-আমিরাতের অনুরোধ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:০১ পিএম, ২৬ আগস্ট ২০১৯

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডেনাল্ড ট্রাম্পকে ইরানে হামলা না করার অনুরোধ জানিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং সৌদি আরব। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা মিডল ইস্ট মনিটর উভয় দেশের কূটনৈতিক সূত্র উদ্ধৃত করে এ খবর জানিয়েছে।

ওয়াশিংটনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-মনিটরের কলাম লেখক বেন কাসপিতের বরাতে তথ্যটি জানা যায়। বেন কাসপিত বলেন, উপসাগরীয় দেশগুলোর গোয়েন্দা কর্মকর্তারা বিশেষ করে আমিরাত এবং সৌদি আরবের গোয়েন্দা কর্মকর্তা যুক্তরাষ্ট্র সফরে গিয়ে ট্রাম্পকে ইরানে হামলা না করার অনুরোধ জানিয়েছেন।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইসরায়েল এ ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। তারা শেষ মুহূর্তে মার্কিন প্রশাসনের কাছে খবরটি পৌঁছে দেয়ার কাজটি করে। বেন কাসপিত বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ছোট একটি হামলা চালালেও তার ‘উচ্চ মূল্য’ শোধ করতে হবে আশঙ্কা করে তারা ট্রাম্পের কাছে ইরানে হামলা না করার অনুরোধ জানান।

উপসাগরীয় অঞ্চলে যুদ্ধের দামামা বাজলেও ইসরায়েল কেন কোনো মন্তব্য করা থেকে সচেতনভাবে বিরত রয়েছে তার কারণও বিশ্লেষণ করেছেন ওই কলাম লেখক। তিনি বলছে, ২০০৩ সালে যুক্তরাষ্ট্র যখন ইরাকে সামরিক আগ্রাসনে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর ভূমিকা।

সংবাদভিত্তিক ওয়েবসাইট বলছে, ২০০৩ সালে ইরাকে সামিরক আগ্রাসন শুরু হওয়ার আগে ইসরায়েল সরকারের কোনো পদে না থাকা নেতানিয়াহু মার্কিন কংগ্রেসের বৈঠকে অংশগ্রহণ করেছিলেন। তিনি যুক্তি দেখিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেনকে ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত করতে হবে, কারণ তিনি পারমাণবিক অস্ত্র বানাচ্ছিলেন।

সম্প্রতি উপসাগরে উত্তেজনা চরমে উঠেছে। মার্কিন এক ড্রোন ইরান ভূপাতিত করলে ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানে হামলার অনুমতি দিয়েছিলেন। হামলার দশ মিনিট আগে তিনি ওই আদেশ প্রত্যাহার করেন। উত্তেজনার নেপথ্যে বিষয় হলো ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বেরিয়ে যাওয়া ।

এসএ/এমকেএইচ