পশ্চিমবঙ্গে সাবেক মুখ্যমন্ত্রীর মূর্তি ভাঙচুর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:০০ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৯

রাজনৈতিক রোষের শিকার হলেন পশ্চিমবঙ্গের রূপকার হিসেবে খ্যাত সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বিধানচন্দ্র রায়। রাজ্যের পূর্ব বর্ধমান জেলায় স্থাপিত বিধান রায়ের মূর্তিটি ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিরোধী দল বিজেপি একে অপরকে মূর্তি ভাঙার ঘটনায় দোষারোপ করেছে।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে অনুযায়ী, ভারতের স্বাধীনতার পর পশ্চিমবঙ্গের শিল্পায়ন ও আধুনিকীকরণে অগ্রণী ভূমিকার জন্য বিধানচন্দ্র রায়ের ওই আবক্ষ মূর্তিটি স্থাপন করা হয়েছিল পূর্ব বর্ধমানের মানকর শহরে। সোমবার সকালে সেখানে গিয়ে দেখা যায়, কে বা কারা সাবেক মুখ্যমন্ত্রীর আবক্ষ মূর্তিটি ভেঙে টুকরো টুকরো করে ফেলে রেখেছে।

বিধান চন্দ্র রায়ের এই মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনাটিকে দুর্ভাগ্যজনক বলে উল্লেখ করে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। তিনি কারো নাম উল্লেখ না করেই এর জন্য কেন্দ্রে বিজেপিকে দোষারোপ করেছেন। গত নির্বাচনে বিজেপি বেশ কিছু আসন পাওয়ার পর থেকেই পশ্চিমবঙ্গে এমন ঘটনা বেড়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

ফিরহাদ হাকিম সাংবাদিকদের বলেন, ‘একটি দল (বিজেপি) দেশ শাসন করছে, কিন্তু দেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সম্পর্কে তারা কিছুই জানে না। ২০১১ সালে বামফ্রন্টকে হারিয়ে রাজ্যের ক্ষমতায় আসার পর আমরা তো কলকাতায় লেনিনের মূর্তি ভাঙচুর করার কথা ভাবিনি।

গত বছর ত্রিপুরায় বিজেপি কর্মীদের কমিউনিস্ট আইকন লেনিনের মূর্তি ভেঙে ফেলার বিষয়টি উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিরোধী দলগুলোর মতাদর্শের প্রতি শ্রদ্ধা করে তৃণমূল কংগ্রেস। এই রাজ্যে বামফ্রন্ট সরকারকে হটিয়ে ক্ষমতায় এলেও এমন ঘটনা তার দল ঘটায়নি বলেও দাবিও করেন পশ্চিমবঙ্গে মমতা সরকারের এই মন্ত্রী।

এদিকে বিজেপির বিরুদ্ধে সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বিধানচন্দ্র রায়ের আবক্ষ মূর্তি ভাঙার অভিযোগ উঠলেও তা অস্বীকার করেছেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি তৃণমূলের এমন দাবি প্রত্যাখান করে বলেন, তার দল এ ধরনের নিচু কাজ কখনোই করে না। এছাড়া মূর্তি ভাঙার ঘটনায় তদন্ত দাবি করেছেন তিনি।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন বিজেপির নেতা বাবুল সুপ্রিয়ও রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কথার সঙ্গে নিজের একাত্মতা প্রকাশ করে বিজেপির ওপর চাপানো দায় প্রত্যাখান করেছেন। তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বিধানচন্দ্র রায়ের মূর্তি ভাঙচুরের ঘটনায় তার দলের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

এনডিটিভি বলছে, বছরের শুরুতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের একটি রোড শো চলাকালীন কলকাতার একটি কলেজে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার সঙ্গে পূর্ব বর্ধমানের এই মূর্তি ভাঙার ঘটনাটির যোগ রয়েছে। তবে এই ভাঙচুরের ঘটনার নেপথ্যে ঠিক কারা রয়েছে তা এখনো নিশ্চিত করে জানা যায়নি।

এসএ/এমএস