ভারতে সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ : জামিয়া মিলিয়ার ছাত্র গ্রেফতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:২৬ এএম, ১৮ মে ২০২০

ভারতের বহুল বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) প্রতিবাদে বিক্ষোভে অংশ নেয়ার অভিযোগে এক ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। সরকারি কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে রোববার এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

২০১৯ সালের ১২ ডিসেম্বর ভারতে পাস হয় বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ)। এই আইনকে বৈষম্যমূলক আখ্যায়িত করে ভারতজুড়ে শুরু বিক্ষোভ। দিল্লির ঐতিহ্যবাহী জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়েও ছড়িয়ে পড়ে এই বিক্ষোভ। এমনকি পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষেও জড়িয়ে পড়ে শিক্ষার্থীরা।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিএএ বিরোধী বিক্ষোভে অগ্রণী ভূমিকা পালন করা জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ও স্টুডেন্ট ইসলামিক অর্গানাইজেশনের (এসআইও) সদস্য আসিফ একবাল তানহা নামের এক শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিনি দিল্লির শাহীনবাগের বাসিন্দা।

আসিফ ইকবাল তানহা জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ফারসি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

পুলিশের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছেন, জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ চলাকালে সংঘর্ষের ঘটনায় জামিয়া পুলিশ স্টেশনে একটি মামলা দায়ের করা হয় গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর। ওই মামলার আসামি আসিফ ইকবাল।

পুলিশ আরও জানায়, সিএএ বিরোধী বিক্ষোভ চলাকালে গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর জামিয়া মিলিয়ার পার্শ্ববর্তী নিউ ফ্রেন্ডস কলোনিতে চারটি গণপরিবহন ও দুটি পুলিশের গাড়িতে আগুন দেয় বিক্ষোভকারীরা। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, পুলিশ ও দমকল বাহিনীর সদস্যসহ অন্তত ৪০ জন আহত হন। বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেয়া জামিয়া কো-অর্ডিনেশন কমিটির একজন সক্রিয় সদস্য আসিফ। একই সঙ্গে, বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেয়া ওমর খালিদ, শারজিল ইমাম, মিরান হায়দার ও সাফুরা জারগারের ঘনিষ্ঠ সহযোগী তিনি।

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গ্রেফতারের পর আসিফকে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে উপস্থাপন করা হয়। তাকে আগামী ৩১ মে পর্যন্ত বিচারিক হেফাজতে রেখে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]