‘বয়কট চায়না’ ক্যাপ-টিশার্ট চীনের তৈরি নয়!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০০ এএম, ০১ জুলাই ২০২০

সম্প্রতি চীনের সঙ্গে সীমান্তে সংঘর্ষের পর ভারতে চীনা পণ্য বয়কটের দাবি উঠেছে জোরেশোরেই। এ দাবির সপক্ষে দেশটির বেশ কয়েকটি রাজ্যে বিক্ষোভ হয়েছে, পোড়ানো হয়েছে চীনের পতাকা, চীনা প্রেসিডেন্টের কুশপুতুলও। এর মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়েছে ‘বয়কট চায়না’ লেখা টিশার্ট ও ক্যাপের ছবি, যেগুলোতে আবার ট্যাগ লাগানো রয়েছে ‘মেড ইন চায়না’। অর্থাৎ চীনের তৈরি পণ্য ব্যবহার করেই দাবি উঠছে চীনা পণ্য বর্জনের!

তবে চীনের ক্ষমতাসীন দল চাইনিজ কমিউনিস্ট পার্টি প্রকাশিত সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, ‘বয়কট চায়না’ ট্যাগযুক্ত ক্যাপ-টিশার্টগুলো চীনের তৈরি নয়। তাদের দাবি, ভারতীয়রাই ইচ্ছা করে নিজেদের তৈরি পণ্যে ‘মেড ইন চায়না’ ট্যাগ লাগিয়েছে অথবা প্রকৃতপক্ষেই চীনের তৈরি একরঙা পণ্যে ‘বয়কট চায়না’ লেখা ছাপিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, চীনের আইনে চীন-বিরোধী যেকোনও নকশা, লেখা বা পণ্য উৎপাদন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এ ধরনের কাজ সেখানে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে বিবেচিত হয়।

jagonews24

তাছাড়া, চীনা রপ্তানিকারকরাও জানিয়েছেন, তারা ‘বয়কট চায়না’ লেখা কোনও পণ্য কোনও দেশেই রপ্তানি করেননি।

সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, অনলাইন পণ্য কেনাবেচার ওয়েবসাইট আলিবাবাতে ‘বয়কট চায়না’ লেখা কোনও পণ্য খুঁজে পাওয়া যায়নি। অ্যামাজনে এ ধরনের লেখাযুক্ত কিছু পণ্য থাকলেও তার কোনওটাই চীনের তৈরি নয়। বরং, সেগুলো ভারতের ঝাড়খণ্ডের কিছু কারখানায় তৈরি হয়েছে বলে প্রমাণ মিলেছে।

নিজেদের পণ্য বিক্রি বাড়ানোর জন্যেই ভারত এ ধরনের মিথ্য প্রচারণা চালাচ্ছে বলে দাবি করেছে চীনা সংবাদমাধ্যমটি।

কেএএ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]